× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার
মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র থেকে বিতাড়িত হয়ে

রাস্তায় সন্তান প্রসব

বাংলারজমিন

উত্তরাঞ্চল প্রতিনিধি | ১২ আগস্ট ২০২০, বুধবার, ১:১৯

গাইবান্ধায় মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে ঠাঁই না পাওয়ায় রাস্তায় সন্তান প্রসব করেছেন এক প্রসূতি। বুধবার গভীর রাতে শহরের ডিবি রোডে সন্তান প্রসব করেন তিনি। পরে পুলিশের সহযোগীতায় অসুস্থ অবস্থায় মা ও শিশুকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
ভুক্তভোগীর স্বজন ও পুলিশ জানায়, সাঘাটা উপজেলার বোনার পাড়ার গৃহবধু জেমি বেগম প্রসব বেদনা নিয়ে  সিনএনজি যোগে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক  উপস্থিত না থাকায় কেন্দ্রের পরিদর্শিকা  সেলিনা আক্তার প্রসূতিকে  ভর্তি না নিয়ে, তাদের অন্যত্র যেতে বলেন। নিরুপায় প্রসূতির স্বজনরা আকুতি-মিনতি করলেও কেন্দ্রে থাকা পরিদর্শিকাসহ স্বাস্থ্য কর্মী ও আয়ারা প্রসূতিসহ তার স্বজনদের মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। বিতারিত হয়ে পরে শহরের ডিবি রোডের পরিত্যাক্ত ঘরে  মেয়ে সন্তান প্রসব করেন ঐ প্রসূতি মা। পরে এলাকাবাসী ও পুলিশের সহযোগীতায় অসুস্থ্য অবস্থায় মা ও শিশুকে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ভতি করা হয়।
গাইবান্ধা সদর থানার ওসি খান মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, ৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে তারা গভীর রাতে প্রসূতিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছেন ।
তার যাবতীয় সেবার ব্যবস্থার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ৬ই এপ্রিল সদর উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের  গোবিন্দপুর গ্রামের প্রসূতি মিষ্টি আকতারকে মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্র থেকে তাড়িয়ে দেন, কেন্দ্রের সিনিয়র স্বাস্থ্য কর্মী তৌহিদা বেগম।   সেই প্রসূতি মা কেন্দ্রের কয়েক’শ গজ দুরেই অটো রিক্সা ভ্যানের মধ্যে সন্তান প্রসব করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর