× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার

ভারত সিরিজে ১০০ মাইল ছুঁবেন স্টার্ক?

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ২:২৮

ক্রিকেটের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত ১০০ মাইল গতিতে বল করতে পেরেছেন মাত্র তিনজন- পাকিস্তানের শোয়েব আখতার, অস্ট্রেলিয়ার ব্রেট লি ও শন টেইট। চতুর্থ বোলার হিসেবে এ তালিকায় যুক্ত হতে নিজেকে প্রস্তুত করছেন মিচেল স্টার্ক। জানিয়েছেন, আসন্ন ভারত সিরিজেই ১০০ মাইল ছোঁয়ার প্রচেষ্টা চালাবেন তিনি।

ডিসেম্বরের শুরুর দিকে অস্ট্রেলিয়া সফর করার কথা রয়েছে ভারতের। এর আগে দু’দলের ক্রিকেটাররা ব্যস্ত থাকবেন আইপিএল নিয়ে। তবে এ টুর্নামেন্টে খেলবেন না স্টার্ক। ফলে নিজেকে তৈরি করার যথেষ্ট সময় রয়েছে তার হাতে। লকডাউনের সময়ে স্টার্ক গতি  ও লাইন লেংথ নিয়ে কাজ করেছেন।

এর আগে দু’বার ১০০ মাইলের কাছাকাছি গিয়েছিলেন এই বাঁহাতি পেসার। দু’বারই পায়ের চোটে পড়েন তিনি।

স্টার্ক এবার কৌশলে কিছুটা পরিবর্তন এনেছেন। ৩০ বছর বয়সী এই পেসার বলেন, ‘দু’বার ঘণ্টায় ১৬০ কিলোমিটারের আশপাশে ছিলাম। দু’বারই পায়ে চোট পেয়েছি। যখন সবকিছু ঠিক থাকবে, ছন্দে থাকবো আর কন্ডিশন অনুকূলে থাকবে তখন গতি বাড়াতে পারবো। এই বিরতিতে জিমে থাকা ও পর্যাপ্ত বিশ্রাম নেয়ায় সম্ভবত আবারো সামর্থ্যের শেষ দেখার চেষ্টাটা করতে পারবো।’

গতি বাড়ালে লাইন-লেংথ ঠিক রাখা কঠিন হয়ে পড়ে। স্টার্ক এ দিকটাতেও মনোযোগ দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘গতিতে যে বল করতে চাই এটা নিয়ে কোনো আপস করবো না। কিন্তু তা করতে গিয়ে ব্যয়বহুল হওয়া চলবে না। গতি ধরে রেখে লাইন-লেংথে ধারাবাহিক থাকার একটা উপায় বের করতে হবে আমাকে। আমার মনে হয় অ্যাকশনে একটু পরিবর্তন আনায় এতে সহায়ক হয়েছে।’

২০১৫তে পার্থে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৯৯.৭ মাইল (১৬০.৪ কি.মি.) গতিতে বল করেছিলেন স্টার্ক। অস্ট্রেলিয়ার পেসারদের মধ্যে ব্রেট লি (২০০৫ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে) ও শট টেইট (২০১০ সালে ইংল্য্যান্ডের বিপক্ষে) সর্বোচ্চ ১০০.১ মাইল বেগে বল করেছেন। তবে ১০০.২ মাইল বেগে বল করে এখন অবধি তালিকায় শীর্ষে আছেন শোয়েব আখতার। ২০০৩ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দ্রুততম ডেলিভারির বিশ্বরেকর্ডটি গড়েন শোয়েব।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর