× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার

অনেক করোনা হাসপাতাল এই মাসেই বন্ধ হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৩:৫৯

করোনা ভাইরাসের প্রকোপ কমে যাওয়ায় এই মাসের শেষ দিকে অনেক কোভিড-১৯ হাসপাতাল বন্ধ করে নন কোভিড হিসেবে ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার  কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বর্তমানে কোভিড হাসপাতালের ৭০ শতাংশ সিট খালি। এজন্য এই মাসের শেষে অবস্থা যদি আরো ভালো হয় তাহলে বেশ কয়েকটি হসপাতাল নন-কোভিড করে দেয়া হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ৮টি বিভাগীয় পর্যায়ে ক্যানসার হাসপাতাল স্থাপন শীর্ষক প্রকল্পের কার্যক্রমের অগ্রগতি পর্যালোচনার জন্য অনুষ্ঠিত সভা শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী একথা বলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা কিছুটা পিছিয়ে গেছি করোনার কারণে। গত ৬/৭ মাস আমরা কাজ করতে পারিনি। এখন আমরা নন-কমিউনিকেবল ডিজিস যেগুলো আছে সেগুলোর উপর জোর দিয়েছি। কাজকর্ম শুরু করে দিয়েছি। তিনি বলেন,  করোনার প্রকোপ কমে আসছে।
করোনার বাইরে যে নন- কোভিড রোগী আছে, করোনার কারণে তারা সেভাবে চিকিৎসা পায়নি। আমরা আগামীতে অনেকগুলো হাসপাতাল নন- কোভিড করে দিচ্ছি, এ মাসের শেষে। এখানে সবাই চিকিৎসা নিতে পারবে। অনেকের চিকিৎসা প্রয়োজন। কিন্তু ভয়ের কারণে, কোভিডের কারণে চিকিৎসা নিতে পারছে না। বাসায় বসে ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে চিকিৎসা নিচ্ছেন। রোগী হাসপাতালে আসছেন না। তিনি বলেন, বর্তমানে কোভিড হাসপাতালের ৭০ শতাংশ সিট খালি। এজন্য এ মাসের শেষে অবস্থা যদি আরও ভালো হয় তাহলে আমরা বেশ কয়েকটি হসপাতাল নন-কোভিড করে দেবো। সেখানে আমরা-আপনারা সবাই চিকিৎসা নিতে পারবো। কোনো দ্বিধাদ্বন্দ্ব থাকবে না। যে সব কোভিড হাসপাতাল নন-কোভিড ঘোষণা করা হবে সেখানে কোভিড চিকিৎসা হবে না, কোভিডের জন্য আলাদা হাসপাতাল রয়েছে, সেখানে চিকিৎসা হবে। কত সংখ্যক হাসপাতাল নন-কোভিড করা হবে তা এখনও চূড়ান্ত হয়নি বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

স্বাস্থ্যমস্ত্রী বলেন, ২০২২ সালের মধ্যেই দেশের ৮ বিভাগে ৮টি ১৫ তলা বিশিষ্ট ক্যানসার হাসপাতাল নির্মাণ করা হবে। এই হাসপাতালে ক্যানসার রোগের পাশাপাশি কিডনী ও হার্টের চিকিৎসারও পর্যাপ্ত ব্যবস্থা থাকবে। ক্যানসার, কিডনী ও হার্টের চিকিৎসার জন্য প্রতিটি বিভাগে অন্তত ৩০০টি করে শয্যা সংখ্যা রাখা হবে। হাসপাতালের শয্যাগুলিতে আধুনিকায়ন করার পাশাপাশি ওয়েটিং রুম, চিকিৎসকদের বিশ্রামাগার, অ্যাটেন্ডেন্টসদের জন্য আধুনিক ও উন্নত ব্যবস্থা রাখা হবে। হাসপাতালগুলি নির্মাণের পর দেশের মানুষকে চিকিৎসার জন্য আর বিদেশমুখী হতে হবে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Nam Nai
১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৯:৩১

AL government will build 15 cancer hospitals. A great opportunity for SHW, OK, Zaid Malek, etc., to get big percentage!

Khokon
১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৩:২৩

শুধু ঘোষণা দিয়া জনগনকে প্রলুদ্ধ করা যায় না। আজকে এটা করবো, আগামী দিন সেটা করবো ইত্যাদি ? দরকার কাজ করে মানুষএর সেবা করা। হসপিটাল তৈরি করা মানে আর একটা দুর্নীতির মধ্ প্রবেশ করা। মানুষ চায় সেবা।

অন্যান্য খবর