× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার

একটি মামলায় জামিন পেলেন কক্সবাজারের আলোচিত সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার থেকে | ১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৪:৫৪

টেকনাফের সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশের রোষানলের শিকার কারাবন্দী নির্যাতিত সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা খান একটি মামলায় জামিন পেয়েছেন। তার বিরুদ্ধে আরও ৫ মামলা রয়েছে।
টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে ওসি প্রদীপ মামলাগুলো দায়ের করেন।

ফরিদুল মোস্তফার স্ত্রী হাসিনা আকতার জানান, দুর্নীতিবাজ পুলিশের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করার জের ধরে তার স্বামী ফরিদুল মোস্তফা খান ওসি প্রদীপ কুমার সহ কিছু পুলিশের রোষানলে পড়েন। তারই জের ধরে সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফাকে ঢাকা থেকে আটক করে টেকনাফ থানা পুলিশ।
পরে তাকে নিয়ে কক্সবাজার সমিতি পাড়াস্থ ভাড়াবাসায় অভিযান চালিয়ে মদ ও অস্ত্র উদ্ধার করেছে দাবি করে তার বিরুদ্ধে পৃথক মামলা দায়ের করেন পুলিশ। যা সম্পূর্ণ রুপে মিথ্যা, সাজানো ও উদ্দেশ্যমূলক বলে দাবী করেন ফরিদুল মোস্তফার স্ত্রী।

এদিকে আজ বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) একটি মামলা থেকে জামিন পান সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফা।
আইনজীবী এ্যাডভোকেট বাপ্পী শর্মা তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
বাদী পক্ষের আইনজীবী ছিলেন এ্যাডভোকেট আব্দুল মান্নান।।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Raju
১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৫:৫৮

এদেশে আরও হাজার হাজার প্রদীপ এখনো বিরাজমান,এদের থেকে মুক্তিও নাই।তারপরও সাংবাদিক ভাই রা সাহস করে কিছু তথ্য আমাদের দেন,এটাই বেশী।

আবুল কাসেম
১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৪:২১

পুলিশ বিভাগের কলঙ্ক বহিস্কৃত ওসি অন্ধকার জগতের বাসিন্দা দুরাচার প্রদীপ বহু নিরাপদ মানুষকে বিপন্ন করে ছেড়েছে। সাংবাদিক ফরিদুল মোস্তফাও প্রদীপের নির্মমতার শিকার। পুলিশ জনগণের বন্ধু হলেও প্রদীপেরা জনগণের শত্রু। অনেকে মনে করেন, কিছু কিছু পুলিশ পেশাদার হতে পারেনি। প্রত্রিকার রিপোর্টে দেখা গেছে প্রদীপের নির্মমতার শিকার হয়ে ও অমানুষিক নির্যাতনে ফরিদুল মোস্তফার চোখ ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আসলে এখন তাঁর চিকিৎসা প্রয়োজন। তাই দ্রুততার সাথে তাঁর মুক্তি কামনা করি এবং তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন সেই কামনা করি।

অন্যান্য খবর