× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার
বার্সা-বায়ার্ন দ্বৈরথ আজ

লড়াইটা মেসি-লেভানদোস্কিরও

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৪ আগস্ট ২০২০, শুক্রবার, ৮:৩৬

করোনাভাইরাসের কারণে এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষাংশ হচ্ছে ভিন্নভাবে। কোয়ার্টার ও সেমিফাইনালে থাকছে না দুই লেগের নিয়ম। রিয়াল মাদ্রিদ, লিভারপুল, জুভেন্টাসের মতো দলগুলোর বিদায় ঘটেছে দ্বিতীয় রাউন্ডেই। সেমির আগেই বার্সেলোনা ও বায়ার্ন মিউনিখের মধ্যে বিদায় নেবে এক দল। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পর লিওনেল মেসিও না থাকলে নিশ্চিতভাবেই রঙ হারাবে ইউরোপ সেরার এবারের আসর। পর্তুগালের লিসবনে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে বার্সেলোনা ও বায়ার্ন মিউনিখ মুখোমুখি হচ্ছে আজ। খেলা শুরু বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়। এক লেগের ম্যাচ হওয়ায় ‘হোম অ্যাডভান্টেজ’ নেয়ার সুযোগ থাকছে না দু’দলেরই।
সাম্প্রতিক পারফরমেন্সের বিচারে কিছুটা এগিয়ে বায়ার্ন মিউনিখ। চলতি মৌসুমে কোচ হান্সি ফ্লিকের দল জিতেছে ঘরোয়া ‘ডাবল’। আর বার্সেলোনা এখনো ট্রফিশূন্য। চ্যাম্পিয়ন্স লীগ শিরোপা ঘরে তুলতে না পারলে ২০১৩-১৪ মৌসুমের পর প্রথমবার শিরোপাহীন কাটবে কাতালানদের। কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে বার্সা কোচ কিকে সেতিয়েনকেও। ৬১ বছর বয়সী এই কোচের চাকরি নির্ভর করছে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ওপরই।
২০০৯ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন্স লীগের নকআউট পর্বে তিনবার মুখোমুখি হয়েছে বার্সেলোনা ও বায়ার্ন মিউনিখ। ২০০৯ ও ২০১৫ সালে কোয়ার্টার ও সেমিফাইনালে বায়ার্নকে দুইবার বিদায় করে দিয়ে শিরোপা জেতে বার্সেলোনা। ২০১৩ সালে সেমিতে কাতালানদের হারায় বায়ার্ন। পরে শিরোপাও জিতে নেয় বাভারিয়ানরা।
বায়ার্ন মিউনিখের টানা অষ্টম বুন্দেসলিগা জয়ে বড় অবদান রবার্ট লেভানদোস্কির। এবার লীগে করেছেন ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ ৩৪ গোল। চলতি মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৪৪ ম্যাচে ৫৩ গোল এই পোলিশ স্ট্রাইকারের। আসরের শীর্ষ গোলদাতাও তিনি (১৩ গোল)। বাভারিয়ানদের ‘ট্রাম্পকার্ড’ ৩১ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকার। বার্সেলোনার যেমন লিওনেল মেসি। আর্জেন্টাইন সুপারস্টারে ভর করেই নাপোলিকে হারিয়ে রেকর্ড টানা অষ্টমবারের মতো ইউরোপ সেরার আসরে শেষ আটে নাম লেখায় কাতালানরা। গত আসরের শেষ আটে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে ফিরতি লেগে মেসি করেছিলেন জোড়া গোল। সেমির প্রথম লেগে লিভারপুলের বিপক্ষেও জোড়া গোল করেন মেসি। ফিরতি লেগে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল মেসিকে আটকে দিয়ে সেমিফাইনালে নাম লেখায়। শিরোপাও জেতে অলরেডরাই।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর