× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২১ অক্টোবর ২০২০, বুধবার
নদীয়ায় ৭ বাংলাদেশি উদ্ধার

হিউম্যান ট্রাফিকিং চক্রের খোঁজে বিএসএফ

কলকাতা কথকতা

জয়ন্ত চক্রবর্তী, কলকাতা | ২৭ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১০:০১
ফাইল ফটো

আন্তর্জাতিক মানবপাচারের একটি বড় চক্রের সন্ধানে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করছে ভারতের বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স ও বাংলাদেশ রেঞ্জার্স।  ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত দিয়ে এই  হিউম্যান ট্রাফিকিং নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার।  বুধবারও পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার  গাজরায় উদ্ধার করা হয়েছে সাত বাংলাদেশি নাগরিককে।  এদের কাছে পাসপোর্ট অথবা বৈধ কাগজপত্র ছিল না।  গ্রামবাসীদের কাছ থেকে টিপ পেয়ে এদের আটক করে মাহেন্দ্রার  অষ্টম ব্যাটালিয়ান।  সাত জনের মধ্যে ছজনকেই কাজের জন্যে পাচার করা হচ্ছিলো ভারতে।  সাত জনের দলটিতে চারজন প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ,  দু'জন নারী এবং একটি শিশু আছে।  পুরুষ চারজনকে চেন্নাই এবং দুই নারীকে হায়দ্রাবাদের সেকেন্দ্রাবাদে পাচার করা হচ্ছিলো।  চার  শ্রমিককে চেন্নাইয়ের একটি কারখানায় নিযুক্ত করতো আড়কাঠিরা।  দুই মহিলাকে বেবিসিটার  হিসেবে নিয়োগ করা হত। মোটা অংকের লেনদেন ছিল এর পেছনে।   টিপ অফ পেয়ে বুধবার রাতে যাদের গাজরা-তারাকপুর হাইওয়ের পাশে আটক করা হয়  তারা হলেন -  শাকিল শেখ,  মোহাম্মদ রহিম,  সুমি আখতার,  পারুল আখতার,  কলি বেগম,  চম্পা বেগম এবং নাবালক ইয়াসিন শেখ।  এদের কাছ থেকে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে অনুসন্ধান শুরু হয়েছে চক্রের  মাথাদের  পাকড়াতে।।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর