× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২০ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার

ভারতে করোনার দ্বিগুন মৃত্যু হয় প্রতিদিন, ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট

ভারত

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা | ২ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার, ১০:১৫

ভারতে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা হাজার ছাড়ালে হইচই শুরু হয়ে যায়। অথচ সারাদেশে প্রতিদিন করোনা ছাড়া অন্য কারণে দ্বিগুনেরও বেশি লোক মারা যায়। সম্প্রতি প্রকাশিত ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর রিপোর্ট সামনে আসতেই দেশজুড়ে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে। ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো জানাচ্ছে, ভারতে ঘণ্টায় নানা ধরনের দুর্ঘটনায় আটচল্লিশ জনের মৃত্যু হয় অর্থাৎ চব্বিশ ঘণ্টায় এক হাজার একশো বাহান্ন জনের। সড়ক দুর্ঘটনায় ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যা আঠারো। অর্থাৎ দিনে চারশ বত্রিশ। ভারতে ঘণ্টায় ষোলজন আত্মঘাতী হন। অর্থাৎ দিনে তিনশো চুয়াল্লিশ জন।
প্রাকৃতিক দুর্যোগে ঘণ্টায় একজন, মানে চব্বিশ ঘন্টায় চব্বিশ। হার্ট অ্যাটাকে ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যা তিন। অর্থাৎ দিনে বাহাত্তর। এই সবমিলিয়ে ভারতে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাটি দুহাজার চব্বিশ। অর্থাৎ করোনায় প্রতিদিন যা মৃত্যু হচ্ছে তার দ্বিগুনেরও বেশি। এর বাইরে অন্য রোগভোগে মৃত্যুও আছে। ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর এই পরিসংখ্যান ভাবানোর জন্যে যথেষ্ট। ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো আরও জানাচ্ছে, ভারতে বছরে চার লক্ষ সাইত্রিশ হাজার তিনশো ছিয়ানব্বইটি পথ দুর্ঘটনার মধ্যে তিরাশি হাজার সাতানব্বইটি হয় সন্ধ্যা ছটা থেকে রাত নটার মধ্যে। অর্থাৎ ঊনত্রিশ শতাংশ রোড এক্সিডেন্ট এই সময়টায় হয়। বছরে সাতাশ হাজার নশো সাতাশিটি রেল দুর্ঘটনার মধ্যে চার হাজার পাঁচশো আঠারোটি হয় সকাল ছটা থেকে সকাল নটার মধ্যে যা শতাংশের হিসাবে ষোলো দশমিক এক।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর