× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার

মানিকগঞ্জেও পেঁয়াজের দাম নিয়ে হৈচৈ, ৩ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার,মানিকগঞ্জ থেকে | ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার, ১:৪৩

সারা দেশের মতো মানিকগঞ্জেও পেঁয়াজের দাম নিয়ে হৈচৈ চলছে। হাট বাজারে ব্যবসায়ীরা মনগড়া দাম হাকাচ্ছেন। ক্রেতারা পড়েছেন বিপাকে। বাজার মনিটিরিং ব্যবস্থা তেমন লক্ষ্য করা না গেলেও মাঝে মধ্যে ভোক্তা অধিদপ্তরের লোকজন ঝটিকা অভিযান চালাচ্ছেন।পাইকারি বাজারে অভিযান চালিয়ে বাড়তি দামে পেঁয়াজ বিক্রির দায়ে ৩ ব্যবসায়ীকে জরিমানা করেছে জেলা ভোক্তা অধিদপ্তর।
বুধবার সকালে জাগির ও ভাটবাউর আড়তে এ অভিযান পরিচালনা করেন জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল।
আসাদুজ্জামান রুমেল জানান,জেলা প্রশাসক এস.এম ফেরদৌস স্যারের নির্দেশে পেঁয়াজের বাজারদর স্বাভাবিক রাখতে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।হঠাৎ করেই নির্ধারিত বাজারদরের অতিরিক্ত মুল্যে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করে অসাধু কিছু পাইকারি ব্যবসায়ীরা। যার প্রভাবে খুচরা বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যায়। খবর পেয়ে দুইটি পাইকারি বাজার  অভিযান চালিয়ে তিন ব্যবসায়ীকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়াও নির্ধারিত মুল্যে পেঁয়াজ বিক্রির জন্য সকল ব্যবসায়ীদেরকে সচেতন করা দেওয়া হয়। জনস্বার্থে আগামীতে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।
এদিকে মানিকগঞ্জ শহর থেকে শুরু করে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের হাট বাজারসহ কাচা মালামাল বিক্রির আড়ত গুলোতে প্রতিকেজি পেয়াজ বিক্রি করা হচ্ছে ৯০ থেকে ১০০ টাকা কেজি।
অথচ একদিন আগে মানিকগঞ্জের বাজার গুলোতে প্রতি কেজি পেয়াজ বিক্রি হয়েছে ৬০ টাকা থেকে ৬৫ টাকা দরে। ঘন্টায় ঘন্টায় পেয়াজের দাম বাড়া নিয়ে সাধারন ক্রেতারা বিপাকে পড়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর