× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২১ অক্টোবর ২০২০, বুধবার

তাইওয়ানে মার্কিন দূত চীনের সামরিক অনুশীলন

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার, ৮:৩০

তাইওয়ান উপত্যকার কাছাকাছি ‘নিজেদের সার্বভৌমত্ব রক্ষার্থে’ সামরিক অনুশীলন চালাচ্ছে চীন। তাইওয়ানে এক শীর্ষ মার্কিন কর্মকর্তার সফরকালীন অবস্থায় এ অনুশীলন চালানো হচ্ছে। তাইওয়ানকে নিজেদের অংশ মনে করে চীন। দেশটিকে ঘিরে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যকার সম্পর্ক দিনদিন তিক্ত হয়ে উঠছে। এর মধ্যে তাইওয়ানের প্রতি সমর্থন জোরদার করছে যুক্তরাষ্ট্র। এ খবর দিয়েছে বিবিসি।
খবরে বলা হয়, বর্তমানে তাইওয়ান সফর করছেন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা কেইথ ক্রাচ। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে কয়েক দশকের মধ্যে তাইওয়ান সফরকারী সর্বোচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা তিনি। শুক্রবার এ সফর ঘিরে যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা করেছে চীন।

চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রেন গুয়োকিয়াং অভিযোগ করেন, যুক্তরাষ্ট্র ও তাইওয়ান সংঘর্ষ এগিয়ে আনছে, প্রায়শই ঝামেলা সৃষ্টি করছে।  গুয়োকিং সাংবাদিকদের বলেন, চীনকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য তাইওয়ানকে ব্যবহার করা, অথবা নিজেদের গড়তে বিদেশিদের ব্যবহার করা কেবলই আকাশ নিজের মনের কল্পনা। তিনি বলেন, যারা আগুন নিয়ে খেলবে, তারা পুড়ে যাবে।এদিকে, চীনের সামরিক অনুশীলন নিয়ে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানাননি গুয়োকিং। তবে বলেছেন, এটি চীনের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা রক্ষার্থে বৈধ ও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ। এর আগে গত সপ্তাহে দুইদিন তাইওয়ানের দক্ষিণ-পশ্চিম উপকূলে মহড়া চালিয়েছে চীনের সামরিক বাহিনী।
তাইওয়ান থেকে বিবিসি’র সিন্ডি সুই জানান, এই সামরিক অনুশীলন হচ্ছে, ওয়াশিংটনের প্রতি চীনের সতর্কতা। তাইওয়ানের ক্ষমতাসীন দল ও এর সমর্থকরা ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের মধ্যকার উত্তেজনাকে সুযোগ হিসেবে দেখছে।
এ সুযোগে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক দৃঢ় করতে চাইছে তারা। তাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি নিশ্চিত করা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর