× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২১ অক্টোবর ২০২০, বুধবার

শায়েস্তাগঞ্জে অবৈধ লেনদেনের অভিযোগে ওসি ও এসআই প্রত্যাহার

বাংলারজমিন

শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি | ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার, ১০:৪৯

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসি মোজাম্মেল হক ও এসআই শওকতকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। শনিবার তাদেরকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে এক ব্যক্তিকে আটক করে টাকা নেয়ার অভিযোগ থাকায় তাদের প্রত্যাহার করা হয়। প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা জানান, দুই জনকেই জেলা পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।
জানা গেছে, গত ১৪ সেপ্টেম্বর শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থেকে এক ব্যক্তিকে আটক করে অর্থ আদায় করে ছেড়ে দেন শায়েস্তাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক ও এসআই (পিএসআই) শওকত। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী ব্যক্তি হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা’র কাছে অভিযোগ করেন। এর প্রেক্ষিতে তাদেরকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আনোয়ার হোসেন জানান, অবৈধ লেনদেনের অভিযোগে হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক ও এসআই শওকতকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
samsulislam
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার, ৩:৪৪

আরেকটি কথা,না বললেই নয়।বি আর টি এ অফিসে নাকি ঘুষ ছাড়া গাড়ি,মোটর বাইক,ড্রাইভিং লাইসেন্স টাকা ছাড়া হয় না।আমি তো এই সব করেছি।ব্যাংক বা অন লাইনে টাকা জমা দিয়েছি।আমার কাছে তো কোনদিন টাকা চায়নি।বরং ইঞ্জিনিয়ারে কাছে গেলে উনি তো সাথে কাজ করে দেন।আমার তো মনে হয় এটাই সোনার বাংলা।আপনি ভ্জাল জিনিস আনবেন,দালাল ধরবেন,তাহলেই সমস্যা।পরে ওদের দোষ খুজেন কেন?

samsulislam
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার, ২:৪৫

সবাই পুলিশের দুর্নীতি দেখে।আমার দুর্ভাগ্য ।আমার কাছ থেকে তো এক দিন ও টাকার কথা বলেনি।আজকে একটা জিডি করলাম,সবাই তো সহযোগিতা করলো।মোটর বাইক য্খন চালাই ত্খন সিগন্যাল দিলে দাঁড়াই।কোনদিন তো টাকার কথা বলেনি।আপনার দুর্বলতার জন্য আপনি টাকা দিবেন,আর পরে পুলিশের দোষ।পুলিশ কি আপনার বাড়িতে গিয়ে টাকা আনে।ঘুষ দিবেন,সেটা আপনার দুর্বলতা।আগে নিজেদের শোধরান।

ছালাম
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার, ২:১০

পুলিশ আর সরকারের বক্তব্য একই রকম। সাধারণেরা বুঝে অন্য রকম। তারমধ্যে আমিও একজন।

Nannu chowhan
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার, ১০:৫৬

Pulisher durniti ghush kelengkari ,dhora khele " close kora holo, prottahar kora holo,bodli kora holo ",ar kono shasti hoy na eai jonnoi eai pulish bahinir beshir vag shodosho nana rokom beayini kaje lipto...

Kazi
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার, ১০:০৮

এখানেই বিচার শেষ না কি তদন্তে সত্যতা পেলে অন্য শাস্তি দেওয়া হবে ?

অন্যান্য খবর