× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ অক্টোবর ২০২০, রবিবার

অ্যান্টিজেন টেস্টের অনুমতি দিলো সরকার

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার, ৯:২৯

অ্যান্টিজেন টেস্ট চালুর অনুমতি দিয়েছে সরকার। গত ১৭ই সেপ্টেম্বর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব ড. বিলকিস বেগম স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে এ অনুমোদনের কথা জানানো হয়েছে।
চিঠিতে বলা হয়েছে, সারাদেশে অ্যান্টিজেন টেস্টের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে অতি স্বল্প সময়ে কভিড-১৯ শনাক্তকরণের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের প্রস্তাবনা এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ১১ই সেপ্টেম্বর ‘ইনটারিম গাইডেন্স’ অনুসরণপূর্বক দেশের সব সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জেলা হাসপাতাল, সরকারি পিসিআর ল্যাব এবং সকল স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটে অ্যান্টিজেনভিত্তিক টেস্ট চালুর অনুমতি নির্দেশক্রমে প্রদান করা হলো।
চিঠিতে শর্ত হিসেবে বলা হয়েছে, যাচাই বাছাইয়ের লক্ষ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রক্রিয়াধীন কভিড-১৯ ল্যাব সম্প্রসারণ নীতিমালাটি চূড়ান্ত হলে তা যথাযথভাবে অনুসরণ করতে হবে। এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।
করোনা মোকাবিলায় গঠিত জাতীয় পরামর্শক কমিটির সর্বশেষ বৈঠক যেটি অনুষ্ঠিত হয় গত ১৭ই সেপ্টেম্বর। সেই বৈঠকে করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্তকরণে চালু থাকা পিসিআর পরীক্ষার পাশাপাশি অ্যান্টিজেন ও অ্যান্টিবডি টেস্ট কার্যক্রম চালুর পরামর্শ দেয়া হয়।
কমিটির চেয়ারপারসন প্রফেসর ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বর্তমানে পিসিআর টেস্টের মাধ্যমে কভিড-১৯ পরীক্ষা করা হচ্ছে যার পরিমাণ তুলনামূলকভাবে কম।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কভিড-১৯ পরীক্ষার পরিমাণ বৃদ্ধি করতে পারলে আরো বেশি সংক্রমণ শনাক্ত করার সম্ভাবনা রয়েছে। এ উদ্দেশ্যে জাতীয় পরামর্শক কমিটি অ্যান্টিজেন ও অ্যান্টিবডি টেস্টের জন্য একাধিকবার পরামর্শ দিয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার, ১০:০২

Finally. It is better late than never. People in administration must change mentality and recognize invention of scientists of the country on time, on due time for the benefit of people of the country. Send Visa for Mr Shill. He is an asset of Bangladesh.

শহিদুল
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার, ৯:৫৬

অসহিষনু রাজনিতিতে দেশের জনগনের মংগল হয় না।

বখতিয়ার
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার, ১০:২৪

ডাঃ জাফরুল্লাহ যুদ্ধ করে হেরে গেল,, ডঃ বিজন হতাশ হয়ে দেশ ত্যাগ করল। এখন আবার দেখি এন্টিজেন টেস্টের অনুমতি,,,!!! এন্টিজেন বিরোধি ***গেল কই????

অন্যান্য খবর