× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৯ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার

ডিএসসিসি’র অভিযান ৯ মামলায় সাড়ে ৮৭ হাজার টাকা জরিমানা

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৯:৪৫

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও ক্যাবল অপসারণ এবং এডিস মশার প্রজননস্থল শনাক্তকরণে অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। রোববার অভিযানের ২৪তম দিনে আরো ৯ মামলায় সাড়ে ৮৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। নগরীর ১৯ নং ওয়ার্ডের নীলক্ষেত এলাকায় মশার প্রজননস্থল চিহ্নিতকরণে অভিযান পরিচালনা করেন কাজী মো. ফয়সালের নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় তিনি ২৯টি স্থাপনা পরিদর্শন করে ২টি স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় ২টি মামলা দায়ের ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। অঞ্চল-২ এর আরামবাগ ও মতিঝিল এলাকায় ডিএসইসিসি’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফেরদৌস ওয়াহিদের নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত এডিস মশার প্রজননস্থল শনাক্তকরণে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় তিনি ৪৫টি স্থাপনা পরিদর্শন এবং ৪টি স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় ৪টি মামলা দায়ের ও ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। এ ছাড়া নিয়মিত উচ্ছেদ কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায় পল্টন মোড় হতে নয়াপল্টনের ভিআইপি টাওয়ার পর্যন্ত অবৈধদের বিরুদ্ধে অবৈধ কেবল অপসারণে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন ডিএসসিসি’র সম্পত্তি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মনিরুজ্জামান। তিনি এসময় ১৫টি ইলেকট্রিক পোল হতে অবৈধ ক্যাবল অপসারণ এবং পল্টন মোড়ে নান্না বিরিয়ানির রন্ধন কাজে ব্যবহৃত বর্ধিতাংশ ফুটপাথের ওপর থাকায় এ সময় নান্না বিরিয়ানির বিরুদ্ধে নগদ ২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।
মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত পল্টন-নয়াপল্টন রোডের একটি ইলেকট্রিক পোলে একটি অস্থায়ী টং দোকান উচ্ছেদ করে তাদের বিরুদ্ধে ১টি মামলা দায়ের ও নগদ ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন, ২০০৯ এর ৭ ধারা মোতাবেক ডিএসসিসি’র সম্পত্তি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এই জরিমানা আদায় করেন। এদিকে করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ এইচ ইরফান উদ্দিন আহমেদ গতকাল আজিমপুর, পলাশী, নীলক্ষেত ও কাঁটাবন এলাকায় অবৈধ ক্যাবল অপসারণে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় তিনি ১৪টি ইলেকট্রিক পোল থেকে অবৈধ ক্যাবল অপসারণ করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর