× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২১ অক্টোবর ২০২০, বুধবার

সাভারে প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় স্কুল ছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যা

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, সাভার থেকে | ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ১:০৬
ঘাতক মিজানুর রহমান চৌধুরী

সাভারে প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় নিলা রায় (১৪) নামের এক স্কুল ছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত বখাটে মিজানুর রহমান চৌধুরী পলাতক রয়েছে। রোববার রাত ৯ টার দিকে সাভার পৌর এলাকার কাজী মোকমা পাড়া মহল্লার একটি পরিত্যাক্ত বাড়িতে এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত নিলা রায় মানিকগঞ্জ জেলার শিংগাইর থানার বালিরটেক গ্রামের নারায়ন রায়ের মেয়ে। সে স্থানীয় আ্যসেড স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী ছিলো। অভিযুক্ত বখাটে মিজানুর রহমান চৌধুরী (২২) একই এলাকার একটি স্কুলের শিক্ষার্থী।

নিহতের পরিবার ও থানা পুলিশ সুত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে বখাটে মিজানুর রহামান নিলা রায়কে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় রোববার রাত ৯ টার দিকে তার ভাইকে নিয়ে হাসপাতালে থেকে বাড়ি ফেরার পথে সাভার গার্লস স্কুলের পাশের গলিতে পৌছলে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা বখাটে মিজানুর তাদের রিকশার গতিরোধ করে।
পরে জোরপূর্বক নীলা ও তার ভাইকে রিকশা থেকে নামিয়ে এ-৬১/৪ নম্বর নিজেদের পরিত্যাক্ত বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে নীলাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ছুরিকাঘাত ও কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায় মিজানুর রহমান। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় স্কুল ছাত্রী নিলা রায়কে উদ্ধার করে সাভার এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

নিহত স্কুল ছাত্রীর ভাই অলক রায় জানান, দীর্ঘদিন ধরেই বখাটে মিজানুর রহমান আমার বোনকে নানা ভাবে উত্যক্ত করে আসছিলো। রোববার রাতে নিলাকে শ^াস কষ্টের জন্য ডাক্তার দেখিয়ে আসার সময় বখাটে মিজানুর তাকে জোরকরে রিকশা থেকে নামিয়ে নিজেদের পরিত্যাক্ত বাসায় নিয়ে যায় এবং আমাকে তারিয়ে দেয়। অনেক্ষণ হয়ে গেলেও ও ফিরে না আসায় আমি ওই বাড়ির সামনে গিয়ে দেখি মাদকাসক্ত কিছু যুবক দৌড়ে পালিয়ে যাচ্ছে। পরে আহত অবস্থায় আমার বোনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, অভিযুক্ত বখাটে যুবক প্রতিদিনই তাদের নিজ মালিকানাধীন পরিত্যাক্ত বাড়িতে বন্ধুদের নিয়ে মাদক সেবন করতো। সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে তার প্রমানও মিলেছে। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক পাশর্^বর্তী এক ভাড়াটিয়া বলেন, প্রতিদিনই ওই বাড়িতে মাদকের আসর বসে। বিষয়টি থানা পুলিশসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদেরকে জানানো হলেও কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি।

সাভার মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম বলেন, নিহতের মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকার সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজে হাসাপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে অভিযুক্ত মিজানুরকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
আবেদ উল্লাহ আবেদ।
২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার, ৭:৫৪

ঘটনার বিবরণে এলাকাবাসীরা জানানঃ খুনী মিজানের পরিত্যক্ত বাড়ীতে প্রতিনিয়ত যে মাদকের আসর বসে, তা ইতিপূর্বে পুলিশকে জানিয়ে কোন ফল হয় নি। তাহলে এসব বীভৎস ঘটনার জন্য মূলতঃ কারা দায়ী?

Faruque Ahmed
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ১:৫১

পুলিশকে সমস্ত পরিত্যাক্ত বাড়ি তালিকা খুঁজে বের করতে হবে এবং বিকাল ৪ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত ঘন ঘন অনুসরণ করা উচিত

অন্যান্য খবর