× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২১ অক্টোবর ২০২০, বুধবার

১৪ দিনের রিমান্ডে স্বাস্থ্যের গাড়িচালক আবদুল মালেক

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৪:৫৭

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালক আবদুল মালেক বাদলের ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ তাকে ঢাকা মেট্টোপুলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় তুরাগ থানার পৃথক দুই মামলায় তার সাত দিন করে ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। অবৈধ অস্ত্র ও জাল টাকা উদ্ধারের ঘটনায় মামলা দুটি দায়ের করা হয়।

রিমান্ড আবেদন শুনানিকালে তার আইনজীবী জি এম মিজানুর রহমান রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মেট্টোপুলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শহিদুল ইসলাম জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

অবৈধ অস্ত্র, জাল নোট ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রোববার ভোরে রাজধানীর তুরাগ এলাকা থেকে আবদুল মালেককে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এ সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগজিন, পাঁচ রাউন্ড গুলি, দেড় লাখ বাংলাদেশি জাল নোট, একটি ল্যাপটপ ও মোবাইলফোন উদ্ধার করা হয়। গাড়িচালক আবদুল মালেকের রয়েছে বিপুল সম্পত্তি। রাজধানীতে রযেছে ২৪টি ফ্ল্যাটবিশিষ্ট সাত তলার দুটি বিলাসবহুল বাড়ি, ১২ কাঠার প্লট।
এছাড়া হাতিরপুলে ১০ তলা ভবনের নির্মাণকাজ চলছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
A.M.Sjddiqui
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৬:৩২

Very innocent religious face. He could be a peer shaheb. Believe me he could earn much better in peerani business than his present criminal business. All he needs a Pagree and a Tasbih and few paid khadem like people. Within a very short period he will be a rich multimillionaire. For Extra training he could contact Rajarbag.

NARUTTAM KUMAR BISHW
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৫:৫৬

Thanks our government authority for this operation. We want to see maximum one corrupted person arrested everyday.

MD.NASRUL ISLAM RIPO
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৫:৪৪

একজন দুর্নীতিবাজ নাগরিক দেদারসে জমি, বাড়ি, গাড়ি, ফ্লাট, সোনা দানা – কিনছেন, ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে একাধিক হিসাব খুলছেন, ফিক্সড ডিপোজিট করছেন । আজব ব্যাপার ক্রেতার আয়ের উৎস নিয়ে রাষ্ট্রের কোনো সংস্থা প্রশ্ন করছে না ....। এই সুযোগে একশ্রেণীর দুর্নীতিবাজ নাগরিকরা দুর্নীতি-লুটপাট করে আঙুল ফুলে কলাগাস হচ্ছে । এমন দেশ পৃথিবিতে বিরল । যে কোনো সম্পদ ক্রয়ের আগে রাষ্ট্রের কোনো সংস্থার নিকট থেকে আর্থিক সামর্থের অনুমোদন নেয়ার বিধান করলে দুর্নীতি কিছুটা হলেও কমবে । দুদককে এ ব্যাপারে দায়িত্ব দেয়া যেতে পারে । দেশের প্রতিটি থানাতে দুদকের অফিস খুলতে হবে, যাদের কাজ হবে জমি, বাড়ি, গাড়ি, ফ্লাট, সোনা (৫ ভৰির বেশি) কিনলে বা ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ফিক্সড ডিপোজিট রাখলে -এই সম্পদ কেনার সামর্থ বেক্তির আয়ের সাথে মিলছে কিনা , অর্থের উৎসের সন্ধান করে দেখা । বঙ্গবন্ধু এক ভাষণে বলেছিলো দুর্নীতিবাজদের খতম করতে হবে অথচ দুর্নীতিবাজরা এই সমাজে বুক ফুলিয়ে গুরে বেড়ায় । দুর্নীতি-লুটপাট করে তা এত্ত শান্তিতে ভোগ করা পৃথিবীর অন্য কোথাও সম্বভ হয় বলে মনে হয় না...।

Monjur
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৫:০৪

এই দেশে কার কি পরিমান সম্পদ আছে, এটা জানা কি খুব কষ্টের ? মালিক, ড্রাইভার, সবার ইনকাম, সম্পদ, জানা এক দিনের বেপার

অন্যান্য খবর