× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৩০ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার

ডাকসু ভিপি নুর গ্রেপ্তার

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৮:৫৯

স্টাফ রিপোর্টার: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে শাহবাগ থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশের হেফাজতে নেয়া হয় বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের ডিসি (গণমাধ্যম) ওয়ালিদ হোসেন। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, নুরসহ কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতাদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলার প্রতিবাদে রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি শাহবাগ মোড়ে গেলে পুলিশ মিছিলে বাধা দেয়। এসময় মিছিলকারীরা সামনে এগোতে চাইলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। সেখানে নুরুল হক নুরসহ আন্দোলনকারী সাত জনকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। আটকের বিষয়ে পুলিশের রমনা জোনের ডিসি সাজ্জাদুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নুরের নেতৃত্বে একটি মিছিল শাহবাগে এসে বিশৃঙ্খলা ও পুলিশের ওপর হামলা চেষ্টা করে। সেখান থেকে নুরসহ ৭ জনকে আটক করা হয়।
তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, পুলিশের কাজে বাধা দেয়া ও যানবাহন ভাঙচুরের অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছে। তাদের বিষয়ে ঊর্ধতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
সোমবার রাজধানীর লালবাগ থানায় নুরসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী। নুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগ আনা হয়।

অভিযোগ অস্বীকার করে নুরুল হক নুর দাবি করেন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এই মামলায় তাকে জড়ানো হয়েছে।
মামলায় প্রধান আসামী করা হয় কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুনকে। এ মামলায় নুর তিন নম্বর আসামী। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন লালবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আশরাফ উদ্দিন। তিনি জানান, হাসান আল মামুন বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। আর ভিপি নুরসহ ৫জনের বিরুদ্ধে এ কাজে সহযোগিতার অভিযোগ আনা হয়েছে। বাকী চার আসামী হলেন- নাজমুল হাসান সোহাগ, মো. সাইফুল ইসলাম, নাজমুল হুদা ও আবদুল্লাহ-হিল-বাকি। মামলার ঘটনাস্থল হিসেবে লালবাগের নবাবগঞ্জকে উল্লেখ করা হয়েছে। এ বিষয়ে নুরুল হক নুর সোমবার বিকালে মানবজমিনকে বলেন, ওই মেয়ের সঙ্গে আমার কোনদিন দেখাই হয়নি। দুই মাস আগে সে আমাকে ফোন দিয়ে সহযোগিতা চেয়েছে যে কোন এক ছেলের সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল, যেটি নিয়ে সমস্যা হচ্ছে। সে জন্য আমাকে ভূমিকা রাখতে বলা হয়। এরপর ফোন দেবে বলে সে আর কোন যোগাযোগ রাখেনি। তিনি বলেন, এক সময়ে সে ছেলেটির পরিচয় দেয় আমাকে এবং বলে আমরা যেন ছেলেটিকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করি। কিন্তু আমি খোঁজ নিয়ে জানি ছেলেটির নাম নাজমুল সে আমাদের সংগঠনের কোন দায়িত্বে নেই। তবে সে আমাদের বিভিন্ন কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকতো। তাই আমি মেয়েটিকে বলেছি সেতো আমাদের সংগঠনের কেউ না, পদেও নেই। এরপর মেয়েটি বলে নজমুলসহ আরো একজনকে বহিষ্কার করতে হবে যে হচ্ছে আমাদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন। কিন্তু আমি তাকে বলি সে তো আমাদের আহ্বায়ক। আমি আহ্বায়ককে কিভাবে বহিষ্কার করবো। তোমার সমস্যা মনে হলে আমি আইনগত সহযোগিতা করবো। বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন বিরোধী সেলে অভিযোগে সহযোগিতা করবো। কিন্তু শেষে সে আর যোগাযোগ রাখেনি। নুর বলেন, আমি মনে করি মামলাটি উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে করা। আর মেয়েটির বাড়ি মায়মানসিংহ। আমি যতটুকু জানতে পেরেছি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের একজন নেতা মেয়েটিকে টাকা পয়সা দিয়ে মামলা করতে সহযোগিতা করেছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
masud
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ১০:৫৬

Rape by Noor !!!! very shy

আব্দুর রব
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ১০:৫০

উনি ইদানিং প্রায়শই ধর্ষন করে। উনার বর্তমানে যে কথার ষ্টাইল তাতে অনেকেই প্রতিদিন ধর্ষিত হচ্ছে।

ভেসেল
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৯:৩৪

আওয়ামী লীগ রাজনৈতিক ভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে । একটি বাচ্চা ছেলেও বুঝতে শিখেছে আওয়ামী কি ! এক সময় হয়তো এই দলটি মানুষের কাছে পরিচয় দিতেও লজ্জাবোধ করবে !

Mahbub
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৯:০৯

Shame Police Shame

জামাল
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৮:৪৬

সবই তো মিছা কিনতু কি হবে তাকে সাজা দেওয়া হবে।

ফরিদ আহম্মেদ
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৮:৪৪

এই সেচ্চাচারিতার তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

Anonymous
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৮:৪১

পুলিশের কাজে বাধা দেয়া ও যানবাহন ভাঙচুরের অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছে। তাদের বিষয়ে ঊর্ধতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Hossain
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৮:২৮

এটা স্পষ্ট একটি মিথ্যা মামলা। নয় মাস পর মামলা।আবার বলছে পরিকল্পিত ধর্ষণ। ধর্ষিত হওয়ার পর তিনি বুঝতে পারছেন পরিকল্পিত ধর্ষণের শিকার হইছেন। তিনি ধর্ষণের আলামত নিয়ে মামলা করতে যাবেন। নয় মাস পর কেন

নজরুল ইসলাম বাবুল
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৮:১৯

এটা অন্যায়। জঘণ্য অবিচার করা হচ্ছে ভিপি নুরুল এর প্রতি। অতীতে যারা ঢাকসুর ভিপি হয়েছিলেন তাদের এ বিষয়ে কথা বলা উচিত।

shiblik
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৯:১৬

Release VP Nur..

মোঃ রায়হান
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৮:১৩

কেন তাকে গ্রেফতার করা হয়ে?

অন্যান্য খবর