× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ অক্টোবর ২০২০, রবিবার

মুরগির কলিজা নিয়ে ক্রিকেটে রাজত্ব করা যায় না: আফ্রিদি

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার, ২:০৯

দীর্ঘদিন পাকিস্তান ক্রিকেটকে প্রতিনিধিত্ব করেছেন শহীদ আফ্রিদি। তিনি এখন সাবেকদের কাতারে। তবে উত্তরসূরিদের খোঁজ-খবর ঠিকই রাখেন আফ্রিদি। বর্তমান দলের একটি সমস্যা চোখে পড়েছে তার। সাবেক এই অলরাউন্ডার মনে করেন, পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের থেকে আক্রমণাত্মক মেজাজ হারিয়ে যাচ্ছে।
‘ক্রিকেট পাকিস্তান’কে ৪০ বছর বয়সী আফ্রিদি বলেন, ‘এখন আমরা ফিটনেসের ওপর সবচেয়ে বেশি জোর দিচ্ছি। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মুরগির কলিজার নয়, সিংহের কলিজার ক্রিকেটাররাই রাজত্ব করে। ভেতর থেকে সাহসী না হলে আর আক্রমণাত্মক মানসিকতা নিয়ে অ্যাটাকিং ক্রিকেট না খেললে বড় দলের সঙ্গে লড়তে পারবেন না আপনি।’
ক্রিজে এসেই বোলারদের ওপর চড়াও হতেন আফ্রিদি। ‘বুম বুম’ খ্যাত এই অলরাউন্ডার তার বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে অনেক ম্যাচ জিতিয়েছেন পাকিস্তানকে।
২০০৯ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যাটে-বলে আফ্রিদি ছিলেন পাকিস্তানের সেরা পারফর্মার। সেমিফাইনাল ও ফাইনালে হাঁকিয়েছিলেন হাফসেঞ্চুরি। সেবার শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়ন হয় পাকিস্তান। আফ্রিদি মনে করেন, টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের মূল শক্তিই হলো ‘অ্যাটাকিং’ মনোভাব। যেটি দলের বর্তমান ক্রিকেটারদের মধ্যে বাকি দুই ফরম্যাটেও দেখতে চান তিনি। এজন্য কোচিং স্টাফদের এগিয়ে আসা উচিত বলে মনে করেন আফ্রিদি। তিনি বলেন, ‘সাপোর্ট স্টাফদের উচিত খেলোয়াড়দের এটা বলা যে, আক্রমণই সেরা ডিফেন্স। আমরা যদি টি-টোয়েন্টিতে দেখি, যেখানে আমরা খুব ভালো। আমরা কিন্তু আমাদের শক্তি আক্রমণাত্মক ক্রিকেট দিয়েই প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করি।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর