× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৯ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার

ময়মনসিংহে জেএমবির চার সদস্য আটক

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, ময়মনসিংহ থেকে | ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার, ৬:১০

 ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় অভিযান চালিয়ে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জেএমবি'র
(জামাতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ) চার সক্রিয় সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-১৪। এ সময় তাদের কাছ থেকে উগ্রবাদী বই, লিফলেট, ল্যাপটপ ও মোবাইল উদ্ধার করা হয়। আটককৃতরা হলেন- জাকির হোসেন (৫০), আক্কাছ আলী (৫৫), মো. হারুন (৩৫) ও ওসমান গনি মল্লিক (৪৮)। তাদের সবার বাড়ি জেলার ফুলবাড়িয়া উপজেলায়। রোববার
(২৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে র‌্যাব-১৪ থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়। এর আগে, শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে ফুলবাড়িয়া উপজেলার জোরবাড়িয়া গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৪ জানতে পারে, ওই গ্রামের মো. আবুল হোসেন বুলবুলের বাড়িতে কয়েকজন জঙ্গি নাশকতার পরিকল্পনা করছে। সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার দিনগত রাত ২টার দিকে র‌্যাব-১৪’র কমান্ডিং অফিসার (সিও) লেফটেন্যান্ট কর্নেল এফতেখার উদ্দিনের
নির্দেশে র‌্যাবের একটি দল ওই এলাকায় অভিযান চালায়।
ঘটনাস্থলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌঁড়ে পালানোর সময় ওই চারজনকে আটক করে র‌্যাব-১৪। র‌্যাব আরো জানায়, আটককৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, দীর্ঘদিন যাবত তারা বিভিন্ন উগ্রবাদী বক্তার বয়ান শুনতো এবং সেগুলো শুনে তারা উগ্রবাদের প্রতি উদ্বুদ্ধ হয়ে জঙ্গি সমর্থক হয়ে উঠে। এতে আরো বলা হয়, আসামিরা নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠনের জন্য বিভিন্ন কৌশলে কাজ করতো ও মসজিদসহ বিভিন্ন জায়গায় গোপনে বৈঠক করে উগ্রবাদী ও নাশকতামূলক তালিম প্রদান করত এবং সংগঠনের জন্য নিয়মিত চাঁদা তুলে সংগঠনের তহবিল
সংগ্রহে ভূমিকা রাখত। এই তহবিল তারা বর্তমানে যেসব জেএমবি সদস্য জেলে বন্দি আছে তাদের হাজত থেকে বের করে এনে নতুনভাবে নাশকতা কার্যক্রম শুরু করাসহ সংগঠনের অন্যান্য খরচ বহন করার কাজে ব্যবহার করতো। উগ্রবাদ কায়েম করার লক্ষ্যে তারা দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে নাশকতা করার পরিকল্পনা করছিল বলে স্বীকার করেন তারা। আটককৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানানো হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর