× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৯ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার

শিশু সন্তানের ওপর সৎপিতার বর্বরতা

বাংলারজমিন

সীতাকুণ্ডু (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি | ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার, ৮:১২

সীতাকুণ্ডে পৌরসভা মহাদেবপুর চৌধুরীপাড়া এলাকায় শিশু তামিম (৭)কে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেছে তারই পিতা। এ ঘটনার দায়ে সীতাকুণ্ডু থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছে। গতকাল সকালে তাকে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সীতাকুণ্ডু পৌরসভার মহাদেবপুর চৌধুরীপাড়া এলাকার নুরুল ইসলামের পুত্র লিটন (৪৬) গত ৫ বছর পূর্বে ডিভোর্স হওয়া ইয়াসমিন আক্তার (২৮)কে দ্বিতীয় বিয়ে করেন এবং ইয়াসমিন আক্তারের আগের সংসারে থাকা দুই বছরের এই শিশু তামিমকে মেনে নিয়ে বিয়ে করেন লিটন। কিন্তু বিয়ে করার পর থেকে পিতাহারা শিশুটিকে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করে আসছিলেন। তারই ধারাবাহিকতায় শনিবার সকালে তার দ্বিতীয় স্ত্রী ইয়াসমিনকে ফোন করে বলেন, শিশুকে পাহাড়ে সবজি বাগানে পাঠাতে সবজি তোলার জন্য। সবজি তোলার জন্য পাহাড়ে গেলে, সবজি কাটতে ভুল করায় তামিমকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে শরীর রক্তাক্ত ও মারাত্মক যখম করে। এদিন বিকাল চারটার সময় শিশুটি কান্না করতে করতে বাড়িতে এলে তার মা ইয়াসমিন আক্তার তার জামা খুলে দেখতে পায় পুরো শরীরে জখমের দাগ রয়েছে।
পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সীতাকুণ্ডু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করান। বর্তমানে শিশুর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে। সীতাকু- থানার এসআই আবুল বাশার বলেন, এ ঘটনায় শিশু নির্যাতন আইনে শিশুটির মা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। গতকাল শিশুটির সৎপিতা লিটনকে গ্রেপ্তার করে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর