× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৪ নভেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার

পরিসংখ্যানে নারী নির্যাতন

ষোলো আনা

মো.জয়নাল উদ্দীন | ১৬ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার, ৮:২৪
ছবিঃ জীবন আহমেদ

মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্রের মতে চলতি বছরের জানুয়ারি-আগস্ট পর্যন্ত ধর্ষণ, যৌন হয়রানি ও পারিবারিক সহিংসতার শিকার হয়েছেন এক হাজার ২০৪ নারী। যেখানে ২০১৯ সালে এক হাজার ৪১৩ নারী ধর্ষণ, ২০১৮ সালে ৭৩২ জন এবং ২০১৭ সালে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ৮১৮ নারী। বাংলাদেশের নারী ও শিশুরা কেমন আছে, তা জানার জন্য প্রায় ৫০টির মতো জেলা ও প্রায় ১১০টি সহযোগী সংগঠনের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করে ‘মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন’। ২০২০ সালের এপ্রিল-জুলাই চারমাসে দেখা যায় ৪১ হাজার ৯৫৪ জন নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার হয়। ২০১৯ ও ২০১৮ সালে সারা দেশের জেলা ও সহযোগী সংগঠনের এই তথ্যগুলো পাওয়া যায়নি। তবে মূলধারার গণমাধ্যমের আটটি পত্রিকা থেকে নেয়া তথ্য মতে ২০১৯ সালে শিশুদের ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে এমন সংবাদ প্রকাশ পায় তিন হাজার চারটি, ২০১৮ সালে দুই হাজার চার শত ৪৪টি এবং ২০১৭ সালে দুই হাজার ৯শ’ ৭৩টি। বাংলাদেশের প্রায় মূলধারার ১৫টি গণমাধ্যম থেকে শিশু নির্যাতনের তথ্য সংগ্রহ করে ‘বাংলাদেশ শিশু অধিকার ফোরাম’। তাদের মতে, ১লা জানুয়ারি থেকে ১৫ই আগস্ট পর্যন্ত সহিংসতা ও নির্যাতনের শিকার প্রায় দুই হাজার ৪৫৯ শিশু।
যেখানে মার্চ থেকে ১৫ই আগস্ট পর্যন্ত এই সংখ্যা প্রায় এক হাজার ৯০২ জন। যেখানে ২০১৯ সালের প্রথম ছয় মাসে দুই হাজার ২৬ জন। পুলিশ সদর দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ সালে প্রথম ছয় মাসে নারী ও শিশু নির্যাতনে মামলা হয়েছে এক হাজার ৮০টি। যেখানে ২০১৯ সালের প্রথম ছয় মাসে মামলা হয় এক হাজার ১৯টি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর