× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৭ নভেম্বর ২০২০, শুক্রবার
কবিতা

সমাধিস্তম্ভে লেখে দিয়ো ১১১

অনলাইন

শহীদুল্লাহ ফরায়জী | ১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৫:৫৭
রায়হান আহমদ

(উৎসর্গ: রায়হান আহমদ)

পুলিশ হেফাজতে
আমার এই মাটির দেহে
১১১ বার আঘাত করেছে
চার ঘন্টার নির্মম নির্যাতনে
২ লিটার রক্ত চামড়ার নিচে
আশ্রয় নিয়েছিলো
হায় ক্ষতবিক্ষত আমার দেহ

মা বিনা অপরাধে 
আমার স্বপ্ন ও শরীর 
ছিন্নভিন্ন হয়ে গেলো

মা
ধনরত্ন নাই বলে আক্রোশে
আর ভয়াবহ হিংস্রতায়
একটার পর একটা নখ
আমার উপড়ে ফেলেছে
মা ভয়ঙ্কর যন্ত্রণার আর্তচিৎকারে
খোদার আরশ কেঁপে উঠলো
কিন্তু  ঘাতকের হাত কাঁপলো না

মা তুমিও কেমন
আমার হৃদয় বিদীর্ণ করা 
কান্না শুনতে পারোনি
তুমি এসে যদি মায়ের দাবি 
নিয়ে ফরিয়াদ করতে..

মা
আমার বুকের পাঁজর
আমার হাত আমার পা
কী জানি কী আঘাতে থেঁতলে দিয়েছে
পাষাণ প্রাচীরে আঘাতে আঘাতে
আমার সমস্ত শরীরটা 
জ্বলন্ত চুল্লির মত উত্তপ্ত হয়ে ওঠে
আমি কত মিনতি করলাম
আমি মানুষ তো
আর সহ্য করতে পারছিনা
আমার মাথায় চূড়ান্ত আঘাত করুন
চিরতরে শেষ হয়ে যাই

ওরা বললো
না না তোকে তাড়াতাড়ি শেষ করবো না
জবাই করা পশুর মত
খন্ড বিখন্ড করবো
মাংসের মতো টুকরো করবো

মা ওরা সত্যি সত্যি
আমার শরীরের সকল 
মাংসপিণ্ডকে থেঁতলে দিয়েছে
মা এত নরক যন্ত্রণা
এত মর্মভেদী দুঃসহ অনন্ত বেদনা
তখন আমি দীর্ঘশ্বাস 
আর অশ্রুপাতে দিশেহারা
অবশেষে মস্তিষ্ক  ফুসফুস কিডনি হৃদপিণ্ড
সহানুভূতি জানিয়ে
আত্মাকে দেহ মুক্ত করে দিলো 

মা 
নিষ্ঠুর যন্ত্রনায় হত্যা করার জন্য
আমি কাকে অভিযুক্ত করবো
তোমাকে না গণপ্রজাতন্ত্রী রাষ্ট্রকে

মা রাষ্ট্র আর নাগরিক কি
পরস্পরের শত্রু
রাষ্ট্র কি চালকবিহীন তরী

মা তোমার চোখের জলের 
দিব্যি দিয়ে বলছি
তোমার  জীবদ্দশায় 
এই রাষ্ট্রের কাছে 
বিচার চাইবে না
কারণ রাষ্ট্র অন্ধ 
প্রকৃত সত্য দেখতে পায়না

মা একটা অনুরোধ রাখবে 
শেষ অনুরোধ
তোমার দেওয়া নাম নয়
আমার সমাধিস্তম্ভে 
লিখে দিয়ো শুধু ১১১।

--
লেখক: শহীদুল্লাহ ফরায়জী 
গীতিকার
১৮.১০.২০২০
--

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Rupee
২০ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার, ১০:০৬

Sotti ,amader rashthro ondho....

Latif
১৯ অক্টোবর ২০২০, সোমবার, ৮:০৯

Excellent work, thanks for sharing with me.

md.mostafizur rahman
১৯ অক্টোবর ২০২০, সোমবার, ১২:১১

ke Bolbo, kono vasa jana nai.

মিজান
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৯:৫৬

কোরআন ও হাদিস মোতাবেক দেশ পরিচালিত না হলে , দেশ ও দেশের মানুষের এ অবস্থাই হবে ।

Hossain
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৯:৩২

যদি ঔ সিসিটিভি না থাকতো তাহলে এই হত্যাকাণ্ড অগোচরেই থেকে যেতো। আর রায়হানের মৃত দেহের পাশে ভয়ংকর কালিমায় লেখা থাকতো সন্ত্রাসী। তার অবুঝ শিশুটি বড় হয়ে জানতো অথবা সমাজের লোকগুলো ঘৃণার দিষ্টিতে বলতো ভয়ংকর সন্ত্রাসী মেয়ে। ভাগ্যের কি নির্মম পরিহার। ধন্যবাদ স‍্যার অনেক সুন্দর কবিতা লেখার জন্যে। তার অবুঝ সন্তানের জন্যে একটি কবিতা লেখবেন।

Shahidul
১৯ অক্টোবর ২০২০, সোমবার, ৯:৫৩

Thank you sir

Abdur Rahim
১৯ অক্টোবর ২০২০, সোমবার, ৮:৪৭

শহীদুল্লাহ ফরায়জী Sir কে thanks; আমজনতার ভাব বলাৱ জন্য ।

Jamal
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৬:২৩

Really i am speechless, this is the present situation in our lovely country. Very near inshallah change will come.

Kobir
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৫:২২

মানুষ হল সৃষ্টির সেরা জীব কিন্তু এই কুলাঙ্গার খুনিরা কি মানুষ? ওদের কে মানুষ বললে, বনের পশুরাও লজ্জা পাবে।

Latif
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৪:৩৮

Excellent work, thanks for sharing with me.

Farjana
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ১:২৮

Very sad..

দেলোয়াৱ
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৭:৫২

তাৱ মনেৱ কথা বলাৱ জনৌ ।চোখেৱ পানি ধৱে ৱাখতে পাৱলামনা।Thanks Sir.

zp
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৮:১৮

আমজনতার স্বাধিকার-অধিকার, জীবনের নিরাপত্তা এবং আমজনতার প্রতি সরকারের জবাবদিহিতা প্রতিষ্ঠায় প্রয়োজন- এই জমিনে আল্লাহর সার্বভৌমত্ব ও কোরআনি আইন প্রতিষ্ঠা । তার জন্য প্রয়োজন জন সচেতনতা এবং প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ এবং অধিকার প্রতিষ্ঠায় একটি একটি ন্যায়ের বিস্ফোরণ ।

Adv goutam Chakrabo
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৭:০৫

খুব ভালো লিখেছেন ভাই।

সোহেল
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৬:৫১

কলিজা কেপে উঠেছে কথা গুলো শুনে বলার মতো কোনো ভাষা আমার জানা নাই ৷ আল্লাহ তুমি চাইলে সবকিছু পারো ৷৷৷

শাহ আলম মানিক
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৬:৩৫

সবার আগে রাষ্ট্র মেরামতের দরকার।

Abu Saimon
১৮ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৫:৪৩

হৃদয় কাড়া শব্দ চয়ন ৷ কিন্ত পুলিশ নামের পাষন্ডদের মনে কখনো এগুলো রেখাপাত করে না ৷ করবে, যেদিন ওদের নিকটাত্মীয় সন্তান অথবা ওদের কোন বংশধরকে এভাবে অন্য জানোয়ারে একই রকম নির্যাতন করবে ৷ অবশ্যই করবে ৷ আল্লাহ সমান্তরাল ভাবে ফেরৎ দেন ৷ ইহ অথবা পরকালে ৷

অন্যান্য খবর