× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৭ নভেম্বর ২০২০, শুক্রবার

নিক্সন চৌধুরীকে আট সপ্তাহের আগাম জামিন

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ২০ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার, ৯:১০

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের মামলায় হাইকোর্ট থেকে আগাম জামিন পেয়েছেন ফরিদপুর-৪ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মুজিবর রহমান চৌধুরী নিক্সন। মঙ্গলবার বিচারপতি শেখ মো. জাকির হোসেন ও  বিচারপতি কেএম জাহিদ সারোয়ার কাজলের বেঞ্চ শর্তসাপেক্ষে তাকে আট সপ্তাহের জামিন দেন।
আদালাতে নিক্সন চৌধুরীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ড. শাহদীন মালিক ও আইনজীবী মনজুর আলম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জান্নাতুল ফেরদৌসী রূপা।
আদেশে আদালত বলেছেন, মামলার তদন্তের ক্ষেত্রে সাক্ষীদের প্রভাবিত করা যাবে না; স্থানীয় প্রশাসনকে কোনো ভয়ভীতি দেখানো যাবে না এবং তদন্ত কর্মকর্তাকে জামিন আবেদনকারী (নিক্সন চৌধুরী) সব ধরনের সহযোগিতা করবেন।
পরে শাহদীন মালিক সাংবাদিকদের বলেন, মামলা এজাহারে একটি কল রেকর্ডিংয়ের কথা বলা হয়েছে। আইনগতভাবে দেখিয়েছি যে, এইভাবে কারো টেলিফোন কনভারসেশন রেকর্ড করার ক্ষমতা কারো নাই। তাছাড়া এটা রেকর্ডিং সাক্ষ্য হিসেবে আসতেই পারে না। এরপর আদালত আট সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছেন। এর জন্য যেসব শর্ত দেয়া হয়েছে, সেগুলো সব মামলায় সবসময়ই থাকে।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইন-২০০১ এর ৭১(ক) ধারা অনুযায়ী কারো কল রেকর্ড করতে হলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর স্বাক্ষরে অনুমোদন লাগে। শাহদীন মালিক বলেন, এছাড়া এজাহারে বলা হয়েছে, মিছিল, মিটিং, শোডাউন করে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন। আসামি তো একজন। তো একজন আসামি মিছিল, মিটিং, শোডাউন করে কেমন করে আচরণবিধি লঙ্ঘন করবেন!
শুনানিতে নিক্সনের জামিনের বিরোধিতা করে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, একজন সংসদ সদস্যের কাছে এমন আচরণ প্রত্যাশিত না। আচরণবিধি লঙ্ঘন, করে, আইন লঙ্ঘন করে তিনি সংবিধানের ১৪৮ অনুচ্ছেদকেও লঙ্ঘন করেছেন।
গত ১৫ই অক্টোবর ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনে আচরণবিধি লঙ্ঘন এবং সরকারি কর্মকর্তাদের ভয়ভীতি প্রদর্শন, গালাগাল ও হুমকির অভিযোগে নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলা করে ইসি। জেলা জ্যেষ্ঠ নির্বাচন কর্মকর্তা নোয়াবুল ইসলাম চরভদ্রাসন থানায় এ মামলা করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Shobuj Chowdhury
২১ অক্টোবর ২০২০, বুধবার, ১:৪১

He is a lucky man. Barrister Moinul Hosen was not!

অন্যান্য খবর