× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৬ নভেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার

বাইরে পাহারা বসিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে | ২৩ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার, ৮:০৩

সিদ্ধিরগঞ্জে ঘরের বাইরে পাহারা বসিয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী (১১)কে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা হলো- সোনারগাঁ আলীরচর এলাকার মৃত এমদাদুল হক পারভেজের ছেলে মো. নাছির (১৯), ভোলা ফ্যাশনচর এলাকার মৃত হাসমত আলীর ছেলে এনায়েত হোসেন (১৬), যশোর কোতোয়ালি এলাকার ইসমাইল গাজীর ছেলে উজ্জ্বল (১৫) ও পটুয়াখালী বাউফল এলাকার সুলতানের ছেলে আরিফুল ইসলাম (১৬)। ঘটনাটি ঘটেছে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীর কদমতলী উত্তরপাড়াস্থ গ্যাস লাইন এলাকায়। এ ঘটনায় গভীর রাতে ধর্ষিত ছাত্রীর মা বাদী হয়ে ৪ জনকে আসামি করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।
মামলা সূত্রে জানা যায়, ধর্ষিত ছাত্রী  গ্রামের বাড়ি থেকে পড়াশোনা করে। করোনার কারণে স্কুল বন্ধ থাকায় গত ৫ মাস যাবৎ সে তার বাবা-মায়ের সঙ্গে সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী কদমতলী উত্তরপাড়া গ্যাস লাইন এলাকায় একটি টিনশেড ঘরে বসবাস করছিল। বুধবার বিকাল সাড়ে ৩টার সময় প্রতিবেশী মো. নাছিরের বাড়ির সামনে খেলাধুলা করার সময় শিশুটিকে জোর করে তার ঘরে নিয়ে যায়। পরে এনায়েত হোসেনের সহযোগিতায় শিশুটিকে ধর্ষণ করে নাছির।
ধর্ষণের সময় ঘরের দরজার সামনে পাহারারত অবস্থায় ছিল উজ্জ্বল ও আরিফুল ইসলাম। চারজনকেই আসামি করে থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী শিশুর মা।
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক সুজন রঞ্জন হাওলাদার বলেন, ‘রাত সাড়ে ১২টার দিকে ৯৯৯ কল করলে দ্রুত থানা থেকে গিয়ে চার জনকে আটক করা হয়। মামলার পরে তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।’ মেয়েটি বাড়িতে আছে। আজ শুক্রবার তার ডাক্তারি পরীক্ষা হবে।
এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ফারুক বলেন, ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। মামলার এজাহারভুক্ত ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এরমধ্যে ঘটনার মূল আসামি নাছির ভুক্তভোগীদের পূর্ব পরিচিত। সে সূত্রে নাসির ওই ছাত্রীকে ঘরে নিয়ে যায় এবং তার ৩ বন্ধু ধর্ষণে তাকে সহযোগিতা করে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Quazi M. Hassan
২৪ অক্টোবর ২০২০, শনিবার, ১২:০৪

this is regular practice , how we can solve only Allah knows

নাসির
২৩ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার, ১২:১৭

জানোয়ারদের ছবি কই? সবগুলির নুনু কেটে খাচায় রাখুন। তারপর বললম দিয়া খুচাইয়া খুচাইয়া মেরে ফেলুন

অন্যান্য খবর