× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৬ নভেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার

দৌলতপুরে ২ বোনের অস্বাভাবিক মৃত্যু

বাংলারজমিন

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি | ২৫ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৮:০৪

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ধর্ষণ মামলা সংক্রান্ত পারিবারিক বিরোধ নিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আপন চাচাতো দুই বোন আত্মহত্যা করেছে। গত শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের আড়িয়া কামারপাড়া এলাকা থেকে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতরা হলেন, একই এলাকার মুয়াজ্জেম সর্দারের মেয়ে এসএসসি পরক্ষার্থী মুক্তা (১৫) ও তার চাচাতো বোন মুন্তাজ আলী সর্দারের মেয়ে রুমা (২৫)। এরা দু’জনই শুক্রবার দুপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, খালাতো বোন বৈশাখী (১৬) ধর্ষণ মামলার সহযোগী আসামি ছিল মুক্তা। এ নিয়ে শুক্রবার দুপুরে মুক্তা ও বৈশাখীর মধ্যে ঝগড়া বিবাদ হয়। এরই জের ধরে রাগে ও ক্ষোভে দুপুর ১২টার দিকে মুক্তা নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। মিরপুরে বিয়ে হওয়া মুক্তার চাচাতো বোন রুমা শুক্রবার সকালে আড়িয়া কামারপাড়ায় বাবার বাড়িতে বেড়াতে আসার পর নিজ বাড়িতে মুক্তাকে আশ্রয় দেয়ার কারণে সেও ঝগড়া বিবাদে জড়িয়ে পড়ে।
মুক্তা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে সংবাদ শোনার পরই রুমাও দুপুর পৌনে ১টার দিকে তার বড় ভাইয়ের ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। গলায় ফাঁস দিয়ে দুই বোনের আত্মহত্যার খবর শুনে দৌলতপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর