× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৯ নভেম্বর ২০২০, রবিবার

মিঠামইনে সিলিন্ডারের আগুনে দগ্ধ একজনের মৃত্যু

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ থেকে | ২৫ অক্টোবর ২০২০, রবিবার, ৭:২৫

কিশোরগঞ্জের মিঠামইনে সিলিন্ডার গ্যাসের আগুনে দগ্ধ একই পরিবারের ৯ জনের মধ্যে সিপাইনেছা (৬২) নামে এক নারী মারা গেছেন। রোববার সকালে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। নিহত সিপাইনেছা মিঠামইন উপজেলার কাটখাল ইউনিয়নের কাটখাল হাজীপাড়া গ্রামের আব্দুস সালামের স্ত্রী। নিহতের ছেলে মুক্তার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এছাড়া সেখানে নিহতের ছেলে মো. কামাল মিয়া (৩০), মেয়ে তাসলিমা (২৬), নাতনী জুয়েনা (১৮) ও পারভিন (১৫) এই চারজন বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছেন। তাদের সবার শরীরের প্রায় ৭০ ভাগ পুড়ে যাওয়ায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন। এছাড়া তাসলিমার দুই মেয়ে উম্মে হানি (৩) ও উম্মে হাবিবা (তিন মাস) এবং তহুরা (১০) এই তিনজনকে চিকিৎসা দেয়ার পর আশঙ্কামুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে।
শনিবার দুপুরে মিঠামইনের কাটখাল হাজীপাড়া গ্রামের আব্দুস সালামের বাড়িতে রান্না করার গ্যাসের পাইপের লিক থেকে গ্যাস পুরো ঘরে ছড়িয়ে সিলিন্ডারের আগুনে শিশু-নারীসহ একই পরিবারের নয়জন দগ্ধ হয়। তাদের সবাইকে গুরুতর আহত অবস্থায় সন্ধ্যার দিকে বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর আটজনকে সেখান থেকে ঢাকায় পাঠানো হয়। ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে এই আটজনকে ভর্তি করার পর রোববার সকাল ১১টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সিপাইনেছার মৃত্যু হয়।
নিহতের ছেলে মুক্তার হোসেন জানান, তার ভাই মো. কামাল মিয়া, বোন তাসলিমা এবং দুই ভাতিজি জুয়েনা ও পারভিনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
এছাড়া তার মায়ের মরদেহ বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর