× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ নভেম্বর ২০২০, বুধবার

রিমান্ডে এমপি হাজী সেলিমের গাড়িচালক

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২৬ অক্টোবর ২০২০, সোমবার, ৪:১৯

ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের গাড়িচালক মিজানুর রহমানের এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ ঢাকা মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সুফিয়ান মোহাম্মদ নোমানের আদালত এই আদেশ দেন।

এর আগে আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তাকে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত তার এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

তার আগে সকালে সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর এরফান সেলিম, তার বডিগার্ড মোহাম্মদ জাহিদ, এ বি সিদ্দিক দিপু এবং গাড়িচালক মিজানুর রহমানসহ অজ্ঞাত ২-৩ জনকে আসামি করে নৌবাহিনীর কর্মকর্তা ওয়াসিফ আহমদ খান বাদী হয়ে ধানমন্ডি থানায় একটি মামলা করেন। ওই মামলায় গাড়িচালক মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

একই ঘটনায় র‌্যাব গ্রেপ্তার করেছে এমপি হাজী সেলিমের ছেলে মোহাম্মদ এরফান সেলিমকে। এ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, নৌবাহিনীর কর্মকর্তা ওয়াসিফ মোটরসাইকেলযোগে যাচ্ছিলেন। এ সময় এরফানের গাড়িটি তাকে ধাক্কা মারে। এরপর তিনি সড়কের পাশে মোটরসাইকেলটি থামিয়ে গাড়ির সামনে দাঁড়ান এবং নিজের পরিচয় দেন।
তখন গাড়ি থেকে আসামিরা একসঙ্গে বলতে থাকেন, ‘তোর নৌবাহিনী/সেনাবাহিনী বের করতেছি, তোর লেফটেন্যান্ট/ক্যাপ্টেন বের করতেছি। তোকে এখনই মেরে ফেলব’ বলে কিল-ঘুষি মারেন এবং আমার স্ত্রীকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন।

নৌবাহিনীর কর্মকর্তা ওয়াসিফ আহমদ খান অভিযোগ করেছেন, ‘তারা আমাকে মারধর করে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে যায়। পরে আমার স্ত্রী, স্থানীয় জনতা এবং পাশে ডিউটিরত ধানমন্ডি থানার ট্রাফিক পুলিশ কর্মকর্তা আমাকে উদ্ধার করে আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে নিয়ে যায়।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
shafiqul islam
২৭ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার, ৪:৫১

Irfanke keno rimand deya hobe na. tar nikot je owakitoi, hendcup, ettadi pawa gese, ta diye she ki korto. kato jonke a porgonjto goom kore mere felese? Kake kake merese atato rimande niye todonto kore ber kora osit. na hoy sorkarer niropekkhota kothay. driver ke rimand. ar she bohal tobiote. ki sondor bisar bebostha.

Kazi
২৬ অক্টোবর ২০২০, সোমবার, ৯:১৮

হাজি সেলিমকে রিমাণ্ডে নিন। এমপির নামে বরাদ্দ বা স্টিকার যুক্ত গাড়ি কেন ছেলেকে ব্যবহার করতে দেওয়া হল জিজ্ঞাসা করুন।

Faruque Ahmed
২৭ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার, ৯:৫৭

সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর এরফান সেলিম খাঁটি ও মহৎ মানুষ। সে কোনও অপরাধ করতে পারে না। তাই ইরফানের কাছ থেকে রিমান্ড এড়াতে খুব খুব খুব খুব খুব ভাল সিদ্ধান্ত

Khokon
২৬ অক্টোবর ২০২০, সোমবার, ৫:৩৩

হাজী সেলিমের ছেলের ড্রাইভারকে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে কিন্তু ইরফানকে নেওয়া হয়নি এটাই বাস্তব এবং এখন থেকেই বিচার কার্য্য শুরু হয়ে গেছে। যে আসল আসামি, যে নিজে এবং নিজের ক্ষমতার জোরে একজন সেনা কর্মকর্তাকে মেরেছে, তাকে রিমান্ডে নেওয়া হয়নি, নেওয়া হয়েছে তার ড্রাইভার, একজন ক্ষমতাহীন, অসহায় মানুষকে ? কি আর হবে ? যেমন হয়েছে, প্রদীপ এবং আকবরের ক্ষেত্রে ? যদি ড্রাইভারের ঘরে ইয়াবা, মদ, বিদেশী

nazrul
২৬ অক্টোবর ২০২০, সোমবার, ৬:১৫

আলিগ দেশের মানুশের জন্যে বর্তমানে দানবে পরিণত হয়েছে , হায় এদেশের মানুষ কোথায় যাবে ? হে আল্লাহ্‌ , এই হায়নাদের তুমি দমন কর ধবংস করো ।

Md. Harun al-Rashid
২৬ অক্টোবর ২০২০, সোমবার, ৪:৪৬

এই যে " তোর..... বের করতেছি" ইত্যাদির ব্যবহার মনে হয় বহু চর্চিত। সার্বভৌমত্ব ও দেশ রক্ষায় জীবন উৎসর্গে সদা প্রস্তুত প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রতি এহেন শ্লেষাত্ব উক্তি করা এক জন তস্কর জন প্রতিনিধির পদ বাতিল করে আজীবনের জন্য ভোটাধিকার কেড়ে নেয়াসহ দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দেয়া হোক।

অন্যান্য খবর