× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৫ ডিসেম্বর ২০২০, শনিবার

নারায়ণগঞ্জে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, শ্রমিক লীগ নেতার ভাতিজা গ্রেপ্তার

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে
২৬ অক্টোবর ২০২০, সোমবার

নারায়ণগঞ্জে ষষ্ঠ শ্রেণির এক শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। রোববার দুপুরে সদর উপজেলার ফতুল্লার শিয়াচর তক্কারমাঠ এলাকার নিজ বাড়িতে ওই শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়। ঘটনার সময় তার মা-বাবা বাড়ির বাইরে ছিলেন। পুলিশ সোমবার দুপুরে ধর্ষক সানিকে (১৮) তক্কারমাঠ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে। ধর্ষক সানি স্থানীয় কিশোরগ্যাংয়ের নেতা হিসেবে পরিচিত। সে ফতুল্লা থানার শিয়াচর গনি হাজী বাড়ীর মোড় এলাকার আক্কাস আলীর পুত্র ও স্থানীয় শ্রমিক লীগ নেতা ঈমান আলীর ভাতিজা। ধর্ষণের শিকার স্কুল ছাত্রী স্থানীয় একটি কিন্ডারগার্টেনের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। এ ঘটনার ওই শিক্ষার্থীর মা বাদী হয়ে সোমবার দুপুরে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
পুলিশ ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য ওই ছাত্রীকে নারায়ণগঞ্জ দেড়শ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।
ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন বলেন, রোববার দুপুরে ওই শিক্ষার্থীকে পাশের ফ্ল্যাটের এক মহিলার কাছে রেখে ডাক্তার দেখাতে যায় তার মা। দুপুর সাড়ে তিনটার দিকে ওই শিক্ষার্থী দুপুরের খাবার খেতে নিজেদের ফ্ল্যাটে যায়। ওই সময় দরজা খোলা পেয়ে স্থানীয় বখাটে সানী তাদের কক্ষে প্রবেশ করে দরজা বন্ধ করে দিয়ে জোরপূর্বক তার মেয়েকে ধর্ষণ করে। বিষয়টি টের পেয়ে পাশের ফ্ল্যাটের মহিলাসহ একাধিক লোকজন দরজা খোলার জন্য চিৎকার চেঁচামেচি করলেও ধর্ষক সানী ২০-৩০ মিনিট পর দরজা খুলে বীরদর্পে তাদের সামনে দিয়ে বের হয়ে যায়। ঘটনাটি তাৎক্ষণিক তার মেয়ে তাকে ফোন করে জানিয়ে বলে যে সানি দরজা খোলা পেয়ে তাদের ঘরে প্রবেশ করে তাকে মুখ চেপে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে। চলে যাবার সময় সানী তার মেয়েকে বলে যায় যে এ বিষয়টি প্রকাশ করলে বা মুখ খুললে তাকেসহ পরিবারের সদস্যদেরকে হত্যা করা হবে। মেয়ের ফোন পেয়ে তিনি ডাক্তার না দেখিয়েই বাসায় চলে আসেন।
তিনি আরো জানান, বেশ কয়েক মাস ধরেই বখাটে সানী তার ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়েকে স্কুলে যাতায়াতের পথে উত্যক্ত করে আসছিলে। এ বিষয়টিও তার মেয়ে তাকে অবগত করেছিলো।
ওসি আরও বলেন, মামলা রুজুর সঙ্গে সঙ্গে তক্কারমাঠ এলাকায় অভিযান চালিয়ে ধর্ষক সানিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে আদালতে পাঠানো হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর