× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৫ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার

গুলশান পুলিশকে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী দিলো যুক্তরাষ্ট্র

দেশ বিদেশ

কূটনৈতিক রিপোর্টার
২১ নভেম্বর ২০২০, শনিবার

কোভিড-১৯ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকারকে দেয়া সহায়তার অংশ হিসেবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)-এর গুলশান অপরাধ বিভাগকে ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জামাদি (পিপিই) প্রদান করেছে ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস। রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার এবং ডিপ্লোমেটিক সিকিউরিটি সার্ভিস রিজিওনাল সিকিউরিটি অফিসের প্রতিনিধিরা ডিএমপি’র গুলশান অপরাধ বিভাগের উপ-কমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তীর কাছে বৃহস্পতিবার এসব সুরক্ষা সরঞ্জাম হস্তান্তর করেন। করোনা মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে অব্যাহত সহযোগিতা দিয়ে আসছে। কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের পর থেকে এযাবতকালে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের পররাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা ও কৃষি দপ্তর, ইউএসএআইডি এবং সিডিসি’র মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকার প্রায় ৬৮.৭ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি অনুদান পেয়েছে। ডিএমপি’র গুলশান অপরাধ বিভাগকে দেয়া যুক্তরাষ্ট্রের করোনা সুরক্ষা সামগ্রীর মধ্যে ছিল পুনরায় ব্যবহারযোগ্য ২,০০০ মাস্ক, ৪৫০টি মেডিকেল-গ্রেড হ্যান্ড স্যানিটাইজারের বোতল এবং ১,০০০ ফেসশিল্ড বা বর্ম। এই সকল সরঞ্জাম দূতাবাস স্থানীয়ভাবে বাংলাদেশি কোম্পানিগুলোর কাছ থেকে কিনেছে। মার্কিন দূতাবাসের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তি মতে, পুলিশের গুলশান অপরাধ বিভাগ করোনা মোকাবিলায় সম্মুখ সারিতে থেকে কাজ করছে।
তারা কোভিড-১৯ মোকাবিলায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য উদ্যোগ ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা কার্যকরভাবে বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন। যুক্তরাষ্ট্র সরকার মনে করে দেশটির অনুদানকৃত এই পিপিই করোনা মোকাবিলায় প্রথম সাড়াদানকারী হিসেবে বাংলাদেশি মানুষের নিরাপত্তায় তাদের উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ দায়িত্ব পালনে সহায়ক হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর