× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৪ ডিসেম্বর ২০২০, শুক্রবার

ডোনা সীমান্ত থেকে আকবরের মোবাইল ফোন উদ্ধার

প্রথম পাতা

ওয়েছ খছরু, সিলেট থেকে | ২১ নভেম্বর ২০২০, শনিবার, ৯:১৬

ডোনা সীমান্তে যখন বরখাস্ত হওয়া এসআই আকবরকে আটক করা হয়েছিল তখন তার কাছে পাওয়া গিয়েছিল মোবাইল ফোন, সিমকার্ডসহ ব্যবহার্য জিনিসপত্র। ভারতীয় খাসিয়া উমেশ ও তার সহযোগীরা আকবরের কাছ থেকে পাওয়া এসব জিনিসপত্র তাদের কাছে রেখে দিয়েছিল। ১০ই নভেম্বর আকবরকে আটক করা হয়। পরের দিন উমেশ খাসিয়া ভিডিও বার্তায় আকবরের এসব জিনিসপত্রের বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানান দেন। এরপর থেকে সিলেটের পুলিশ আলোচিত এ মামলার তদন্তের প্রয়োজনে বিশেষ করে মোবাইল ফোন উদ্ধারের পথ খুঁজছিল। অবশেষে নিজেদের সোর্স ব্যবহার করে এসব জিনিসপত্র হাতে পেয়েছে সিলেট জেলা পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ দুর্গম এলাকায় গিয়ে খাসিয়াদের রেখে যাওয়া এসব জিনিসপত্র উদ্ধার করে। এরপর তারা মামলার তদন্ত সংস্থা পিবিআইয়ের কাছে এসব জিনিসপত্র হস্তান্তর করেছে।
সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন জানিয়েছেন- আকবরের গ্রেপ্তারস্থল থেকে তল্লাশি চালিয়ে মোবাইল ফোন ও সিম কার্ডসহ ব্যবহৃত সামগ্রী জব্দ করা হয়। এরপর মামলার তদন্তে অগ্রগতির জন্য সেগুলো পিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। কানাইঘাটের দুর্গম এলাকা ডোনা সীমান্ত। একপাশে বাংলাদেশের পাতিছড়া এলাকা। বাগানময় এলাকা। এই এলাকা দিয়ে সিলেট জেলা পুলিশ সোর্স মারফতে বরখাস্ত হওয়া এসআই আকবরকে গ্রেপ্তার করেছিল। দীর্ঘ ২৯ দিন পলাতক থাকার পর সোর্স মারফতে তাকে ধরে নিয়ে আসা হয় সীমান্ত এলাকায়। এরপর সেখান থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসে। ১১ই অক্টোবর সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে ধরে নিয়ে এসে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছিল নগরীর নেহারীপাড়ার যুবক রায়হান উদ্দিনকে। ঘটনার দিনই সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার কমলাবাগান এলাকা দিয়ে পালিয়েছিল বরখাস্ত হওয়া এসআই আকবর হোসেন। কানাইঘাট থানার ওসি শামসুদ্দোহা পিপিএম জানিয়েছেন- গোপন তথ্যের ভিত্তিতে দু’টি মোবাইল ফোন, সিম কার্ড ও আকবরের ব্যবহৃত কাপড় উদ্ধার করা হয়েছে। যেহেতু রায়হান হত্যা মামলাটি তদন্ত করছে পিবিআই, সেজন্য উদ্ধার মোবাইল ফোনসহ অন্যান্য আলামত পিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। জব্দ সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে- দু’টি মোবাইল ফোন, চারটি সিম কার্ড, দু’টি গামছা, শার্ট ও সোয়েটার।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর