× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৫ ডিসেম্বর ২০২০, শনিবার
বিবিসির প্রতিবেদন

বাইডেনের পক্ষ নিলেন মিশিগানের দু’রিপাবলিকান, ট্রাম্পের পথ সংকীর্ণ হচ্ছে

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(২ সপ্তাহ আগে) নভেম্বর ২১, ২০২০, শনিবার, ১২:০৬ অপরাহ্ন

প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত জো বাইডেনকে সমর্থন করছে মিশিগান। ফলে প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের ক্ষমতায় টিকে থাকার সুযোগ ক্রমশ সংকীর্ণ হচ্ছে। তিনি মিশিগান, জর্জিয়া, পেনসিলভ্যানিয়ার ফল পাল্টে দেয়ার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু মিশিগানের দু’জন জাদরেল রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পক্ষ অবলম্বন করেননি। তারা ইঙ্গিত দিয়েছেন, ওই রাজ্যে জো বাইডেনের বিজয় উল্টো দিতে চান না তারা। এই দু’রিপাবলিকন হলেন মিশিগানের সিনেট সংখ্যগরিষ্ঠ নেতা মাইক শিরকি এবং রাজ্যের হাউজের স্পিকার লি চ্যাটফিল্ড। শুক্রবার বিকেলে তারা এ নিয়ে হোয়াইট হাউজে বৈঠক করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে। এই রাজ্যে এক লাখ ৫৪ হাজার ভোট পেয়ে জো বাইডেন বিজয়ী হয়েছেন।
এখানকার রিপাবলিকান দলের এই দুই আইনপ্রণেতা মিডিয়ার সামনে বলেছেন, তারা ট্রাম্পের সঙ্গে করোনা ভাইরাস নিয়ে আলোচনা করেছেন। ট্রাম্পের নির্বাচনের ফল পাল্টে দেয়ার চেষ্টা নিয়ে আলোচনা করেননি। এর আগে হোয়াইট হাউজ থেকে বলা হয়, এটা কোনো আদেশ দেয়ার মিটিং ছিল না। এটা ছিল সরাদেশের রাজ্যগুলোর আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে নিয়মিত বৈঠকের অংশ। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। তবে বৈঠকের পর শিরকি এবং চ্যাটফিল্ড যৌথ বিবৃতিতে বলেছেন, মিশিগানের নির্বাচনের ফল পরিবর্তন করে দেয়ার বিষয়ে এখন পর্যন্ত আমাদের কাছে কোন তথ্য নেই। তাই আমরা আইন অনুসরণ করবো এবং মিশিগানের ভোটারদের রায় অনুযায়ী স্বাভাবিক কর্মকান্ড পরিচালনা করবো। নির্বাচনজুড়েই আমরা এটা বলে এসেছি। উল্লেখ্য, মিশিগানে প্রাথমিক ফলাফলে বিজয়ী হয়েছেন জো বাইডেন। ফলে যেহেতু এই দু’জন রিপাবলিকান ভোটারদের রায়ের প্রতি সম্মান দেখানোর কথা বলেছেন, তার অর্থ হলো এ রাজ্য এখন জো বাইডেনের।
ডেমোক্রেটদের দাবি, নির্বাচনের ফলকে পাল্টে দিতে এসব আইন প্রণেতাদের ওপর চাপ সৃষ্টি করে যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। জো বাইডেনের প্রচারণা শিবিরের আইনগত উপদেষ্টা বব বাউয়ার বলেছেন, ট্রাম্প যেটা করছেন তা হলো ক্ষমতার অপব্যবহার। নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রকাশ্যে ভীতি প্রদর্শন করছেন। ব্যাপারটা পুরো আতঙ্কজনক। ওদিকে ১লা অক্টোবরের পর শুক্রবার প্রথম সংবাদ সম্মেলন করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রেস সেক্রেটারি কেলি ম্যাকইনানি। তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত জো বাইডেনের বিজয় মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানান। পক্ষান্তনে তিনি মিডিয়াকর্মী এবং ডেমোক্রেটদের ওপর বিষোদগার করেন। তাদের কপট হিসেবে তুলে ধরেন তিনি। অভিযোগ করেন, এরাই চার বছর আগে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিজয়কে অবৈধ করার চেষ্টা চালিয়েছিল।
উল্লেখ্য, মিশিগানের আগে জর্জিয়ায় সামান্য ভোটে জো বাইডেনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। এরপর যেহেতু মিশিগানের ওই দু’জন আইন প্রণেতা যথাযথ আইন অনুসারে তাদের কর্মকান্ড পরিচালনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তাতে বোঝা যায় তারা মিশিগানে বাইডেনের জয়ের পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। এ অবস্থায় জো বাইডেনের বিজয় আরো পোক্ত হয়ে গেল। ওদিকে আগামী ২০ শে জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন জো বাইডেন। শুক্রবার তার অন্তর্বর্তী টিমকে নিয়ে তিনি তার প্রশাসনের প্রথম ১০০ দিনের কর্মপরিকল্পনা সাজিয়েছেন। এতে কোন কোন ইস্যুকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে তাও নির্ধারণ করেছেন। তবে অন্যদিকে আক্রমণ শাণিয়েছেন ট্রাম্প। তিনি আবারও নিজের জয় দাবি করেছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর