× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২১ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার

মাগুরায় স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণ

শেষের পাতা

মাগুরা প্রতিনিধি
২৩ নভেম্বর ২০২০, সোমবার

মাগুরায় স্বামীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে স্ত্রী (৪৫)-কে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মাগুরা সদর উপজেলার জাগলা গ্রামের একটি মাঠে এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে অজ্ঞাত ৫ জনকে আসামি করে গতকাল দুপুরে মাগুরা সদর থানায় মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী ওই নারী। ধর্ষিতার স্বামী সিদ্দিক জোয়ারদার বলেন, আমি ও আমার স্ত্রী ধান মৌসুমে বিভিন্ন গ্রামে গ্রামে গিয়ে ঘোড়ার গাড়ির মাধ্যমে ধান সংগ্রহের কাজ করি। গত প্রায় বিশ দিন আগে ধান সংগ্রহ করার জন্য ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার বইনদেখালি থেকে মাগুরা সদরের জাগলা গ্রামে ধান সংগ্রহের জন্য আসি। নিজের কোন জায়গা না থাকায় আমরা জাগলা এলাকার মাঠে পলিথিনের তাঁবু খাটিয়ে বসবাস করি। শনিবার সন্ধ্যায় অপরিচিত ৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ চক্র ধারালো অস্ত্র নিয়ে আমাদের উপর চড়াও হয় এবং মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এ সময় তারা আমাকে জোরপূর্বক একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে এবং আমার স্ত্রীকে জোর করে ধরে পার্শ্ববতী একটি পুকুরের নিকট নিয়ে ধর্ষণ করে।
এ সময় আমার কাছে থাকা ৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় তারা। ধর্ষণ শেষে কাউকে কিছু না জানানোর হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে আমরা চিৎকার দিলে এলাকার লোকজন আমাদের উদ্ধার করে। এ ঘটনায় আমার স্ত্রী নিজে বাদী হয়ে সদর থানায় রোববার দুপুরে সদর থানায় মামলা করেন। মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন জানান, এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ রোববার দুপুরে মাগুরা সদর থানায় অজ্ঞাতনামা ৫ জনকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। ইতিমধ্যে ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Ashraful Alam
২২ নভেম্বর ২০২০, রবিবার, ৩:১৪

ধর্ষণের ক্ষেত্রে কোন পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করে না কারণ তাদের দৃষ্টিতে ধর্ষণ তেমন বড় অপরাধ না।

অন্যান্য খবর