× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার

দৌলতপুরে ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

বাংলারজমিন

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি
২৫ নভেম্বর ২০২০, বুধবার

ভিজিডি’র চাল আত্মসাতের মামলায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার রিফাইতপুর ইউপি’র আওয়ামী লীগ দলীয় চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু’র জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল দুপুরে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল আমলী আদালতের বিচারক এনামুল হক এ নির্দেশ দেন। এর আগে ভিজিডি কার্ডধারী সুবিধাবঞ্চিত ভুক্তভোগী এক নারীর পক্ষে তার ভাই  দৌলতপুর উপজেলার রিফাইতপুর ইউনিয়নের শিতলাইপাড়া গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে মুন্না গত ১৭ই নভেম্বর চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু’র বিরুদ্ধে কার্ড জালিয়াতি করে ভিজিডি’র চাল আত্মসাতের অভিযোগ দায়ের করেন আদালতে। আদালতের বিচারক অভিযোগটি মামলা হিসেবে আমলে নিয়ে এজাহারভুক্ত করার জন্য দৌলতপুর থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। আদালত সূত্রে জানা যায়, দৌলতপুর উপজেলার রিফাইতপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু ওই ইউনিয়নের শিতলাইপাড়া গ্রামের বাসিন্দা রুবিনা খাতুনের ভোটার আইডি কার্ড ব্যবহার করে তার (রুবিনা) নামে একটি ভিজিডি কার্ড তৈরি করেন। চেয়ারম্যান বাবু রুবিনার ভিজিডি কার্ডের বিপরিতে ২০১৯-২০ অর্থ বছরে বরাদ্দ হওয়া সরকারি চাল উত্তোলন করে তা আত্মসাত করেন। বিধবা রুবিনা এ ব্যাপারে কিছুই জানতেন না। সম্প্রতি বিষয়টি জানাজানি হলে রুবিনা খাতুন স্থানীয় মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার অফিসে গিয়ে জানতে পারেন তার নামে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের ভিজিডি কার্ড রয়েছে।
সেই কার্ডে নিয়মিত চাল উত্তোলন হয়ে আসছে। তার কার্ড নম্বর ৫১। বাদী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট মনোয়ার হোসেন মুকুল জানান, অভিযুক্ত চেয়ারম্যান দীর্ঘদিন ধরে আমার মক্কেলের নামে সরকারের মহতী উদ্যোগ ভিজিডি কর্মসূচির চাল আত্মসাত করে আসছিলেন। এই ঘটনায় মামলা হলে আসামি জামিনের জন্য আবেদন করেন। বিজ্ঞ আদালত শুনানি শেষে জামিন নামঞ্জুর করে অভিযুক্ত চেয়ারম্যানকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর