× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৫ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার
বিবিসির রিপোর্ট

মুসলিম নেতা আবদুল নাসেরের অস্ট্রেলিয় নাগরিকত্ব বাতিল

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) নভেম্বর ২৫, ২০২০, বুধবার, ৩:৪৩ পূর্বাহ্ন

আলজেরিয়ায় জন্মগ্রহণকারী এক মুসলিম ধর্মীয় নেতার নাগরিকত্ব বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়া। ২০০৫ সালের এক সন্ত্রাসী হামলা ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগে আবদুল নাসের বেনব্রিকা নামের এই ধর্মীয় নেতাকে ২০০৯ সালে ১৫ বছরের জেল দেয় আদালত। আগামী মাসে তার মুক্তি পাওয়ার কথা। এক্ষেত্রে অস্ত্রেলিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পিটার ডাটন বলেছেন, অস্ট্রেলিয়ার জনসাধারণকে সুরক্ষিত রাখতে তার নাগরিকত্ব বাতিল করাটা যথার্থ হয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। এতে আরো বলা হয়, অস্ট্রেলিয়ার ভিতরে অবস্থান করা তিনিই হবেন প্রথম ব্যক্তি, যার নাগরিকত্ব কেড়ে নেয়া হচ্ছে। তবে সরকারের এ সিদ্ধান্তের বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন তার আইনজীবীরা।
ব্রিসবেনে পিটার ডাটন বলেন, যে ব্যক্তি আমাদের দেশে সন্ত্রাসী হামলার জন্য উল্লেখযোগ্য হুমকি, তখন অস্ট্রেলিয়ার আইন ব্যবহার করে আমরা দেশবাসীকে রক্ষা করতে সম্ভাব্য যেকোনো কিছু করতে পারি।
তবে অস্ট্রেলিয়ার আইন অনুযায়ী, সরকার শুধু ওইসব ব্যক্তির নাগরিকত্ব বাতিল করতে পারে, যাদের দ্বৈত নাগরিকত্ব আছে। এর ফলে দ্বৈত নাগরিকত্ব থাকা ব্যক্তি রাষ্ট্রহীন হয়ে পড়েন না।
উল্লেখ্য, বেনব্রিকা ১৯৮৯ সাল থেকে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করছেন। ২০০৫ সালে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সন্ত্রাসী সংগঠনের সদস্য হওয়ার দায়ে এবং এর কর্মকান্ডে নেতৃত্ব দেয়ার জন্য তখন তাকে অভিযুক্ত করা হয়। ওই গ্রুপে যোগ দেয়ার জন্য আরো ৬ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছিল। গ্রুপটি অনেক স্থানে হামলা পরিকল্পনা করেছিল। এর মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার একটি ফুটবল ফাইনাল খেলায় হামলার পরিকল্পনা করেছিল তারা। এই খেলায় প্রতি বছর মেলবোর্নে সমবেত হন প্রায় এক লাখ মানুষ। অপরাধের কারণে বেনব্রিকাকে যে শাস্তি দেয়া হয় তার মধ্যে ১২ বছর প্যারোলবিহীন শাস্তি। এর মেয়াদ শেষ হয় ৫ই নভেম্বর।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
SJ
২৬ নভেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১:২১

(পরিকল্পনা করেছিল) এমন বাক্য ব্যাবহার করে শাস্থি দেয়া যথার্থ নয় । পরিকল্পনা কারীর বিরুদ্দে কৌশল নেয়া যায় । শাস্থি তিনিই পায় যিনি আপরাধ কর্ম করে দেয় । বুঝতে কঠিন হবে তাই পরিস্কার করে বলছি । কেউ যদি আপরাধ কর্মের পরিকল্পনা করে তবে এমনও হতে পারে বাস্তবায়িত করার পূর্বেই সে কর্ম নিষ্ফল হল , তখন তা সুপ্ত আবস্থায় রইল এবং সরে আসল পরবর্তীতে তা না হইল, তবে সে প্রমান যোগ্য আপরাধি হল না । মানব জীবনে কর্ম বেতিত কোনও কিছু পরিবর্তিত হয়না । পরিকল্পনা আনুমান করার ক্ষমতা সৃষ্টিকর্তার আছে ,মানুষের নয় ।। অস্ট্রেলিয়া তার সাথে অবিচার করছে যার প্রমান তার নাগরিকত্ব বাতিল করা ।।

তানিম খান
২৫ নভেম্বর ২০২০, বুধবার, ৪:৫৫

তা বুঝলাম তবে অস্ট্রেলিয়ার সেনাবাহিনীর যে সদস্যরা আফগানিস্তানে যুদ্ধাপরাধ করেছে তাদেরটা কি বাতিল করা হবে? নাকি মুসলমানের রক্তের দাম দম?

এ কে এম মহীউদ্দীন
২৫ নভেম্বর ২০২০, বুধবার, ৪:২৮

এই লোকগুলি কী বুঝে এমন কাণ্ডজ্ঞানহীন হয় তা একমাত্র আল্লাহতা'আলাই জানেন।

অন্যান্য খবর