× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, বুধবার
সাংবাদিকের ওপর পুলিশি হামলা

টিসিএ রংপুরের ৩ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর থেকে
২৭ নভেম্বর ২০২০, শুক্রবার

রংপুরে সংবাদকর্মীর ওপর পুলিশি হামলার ঘটনায় পরপর দু’দফা সময় চেয়ে মেট্রোপলিটন পুলিশ পদক্ষেপ না নেয়ায় ৩ দিনের আন্দোলন-কর্মসূচি ঘোষণা করেছে টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন (টিসিএ), রংপুর। বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় নগরীর সুমী কমিউনিটি সেন্টার মিলনায়তনে টিসিএ, রংপুরের সাধারণ সম্পাদক এহসানুল হক সুমন লিখিত বক্তব্যে আন্দোলন-কর্মসূচি ঘোষণা করেন। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে রোববার সকাল ১১টায় কাচারী বাজারে অবস্থান কর্মসূচি, রংপুর সিটি কর্পোরেশন ও জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান, সোমবার সকাল ১১টায় কাচারী বাজারে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ এবং পহেলা ডিসেম্বর সকাল ১১টায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ। এ সময় সাংবাদিক নেতারা মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল ইতিবাচক খবর বর্জনেরও ঘোষণা দেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, গত ১৭ই নভেম্বর বিকালে সিটি কর্পোরেশনের উচ্ছেদ অভিযানে পেশাগত দায়িত্ব পালন করার সময় ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের ক্যামেরাপার্সন লিমন রহমানকে সংঘবদ্ধভাবে ১০-১৫ জন পুলিশি পিটিয়ে ও লাথি মেরে গুরুতর আহত করে। এ ঘটনায় তাৎক্ষণিক রংপুরে কর্মরত সকল সাংবাদিক বিক্ষোভ করলে পুলিশ প্রশাসন তদন্ত কমিটি গঠন করে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশসহ দোষী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন। টিসিএ ঘটনার ফুটেজ পুলিশের কাছে সরবরাহ করেছে। ঘটনার ৭২ ঘণ্টা পেরিয়ে যাওয়ার পরও তারা দোষী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি।
এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ সাংবাদিকরা আন্দোলন-কর্মসূচি পালন করলে আবারও প্রেস ক্লাব, রিপোর্টার্স ক্লাব, সিটি প্রেস ক্লাব, টিসিএ, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, রংপুর ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনসহ বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে দু’দিনের সময় নেয় পুলিশ প্রশাসন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পুলিশ প্রশাসনের বেঁধে দেয়া সময় পেরিয়ে গেলে এখন পর্যন্ত তারা কোনো সাংবাদিক সংগঠনের নেতা কিংবা টিসিএ’র নেতৃবৃন্দের সঙ্গে যোগাযোগ পর্যন্ত করেনি। এতে করে টিসিএসহ রংপুরের সাংবাদিক সমাজের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। সেই সঙ্গে ন্যায় বিচার নিয়ে সংশয়েরও সৃষ্টি হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে আরো জানানো হয়, মেট্রোপলিটন পুলিশ প্রতিষ্ঠার পর থেকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ক্লুলেস মামলার রহস্য উদ্ঘাটন, বিভিন্ন মামলার তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করে প্রশংসিত হয়েছে। কিন্তু সাংবাদিকের ওপর পুলিশি হামলার ঘটনায় কোনো পদক্ষেপ না নেয়াসহ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ না করায় সাংবাদিকরা হতভম্ব হয়ে পড়েছেন। সমাজের দর্পণ হিসেবে সাংবাদিকদের আখ্যায়িত করা হলেও আজ তারাই বিচার পাচ্ছেন না। এ অবস্থায় সাংবাদিকদের ওপর পুলিশি হামলা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তসহ অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশের মহাপরিদর্শকের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- রংপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রফিক সরকার, রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহ্‌ বায়েজিদ আহমেদ, সিটি প্রেস ক্লাবের সহ-সভাপতি শাকিল আহমেদ, টিসিএ’র সভাপতি শাহ্‌ নেওয়াজ জনি, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, রংপুরের সাধারণ সম্পাদক মমিনুল ইসলাম রিপন, রংপুর ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আদর রহমানসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর