× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২০ জানুয়ারি ২০২১, বুধবার
শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন

প্রার্থী হবেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিতরা

বাংলারজমিন

শায়েস্তাগঞ্জ প্রতিনিধি
৩০ নভেম্বর ২০২০, সোমবার

২৮শে ডিসেম্বর আসন্ন হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন শায়েস্তাগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও প্যানেল মেয়র মাসুদুজ্জামান মাসুক। গত শনিবার বিকালে দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রথম ধাপের দেশে ২৫টি পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়। এ সভায় শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও প্যানেল মেয়র মাসুদুজ্জামান মাসুককে মনোনয়ন দেয়া হয়।
এর আগে গত বুধবার রাতে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নাম কেন্দ্রে পাঠানোর জন্য শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে কলোনি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে পৌর আওয়ামী লীগের এক বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়। পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে নিজেদের পরিচয় তুলে ধরে প্রার্থীতার ঘোষণা দেন। দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ছিলেন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান মেয়র মো. ছালেক মিয়া, সাধারণ সম্পাদক পৌরসভার প্যানেল মেয়র মাসুদউজ্জামান মাসুক, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি আতাউর রহমান মাসুক, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ফজল উদ্দিন তালুকদার ও আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কাশেম শিবলু।
মাসুদউজ্জামান মাসুক মনোনয়ন পাওয়ার খবরে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী অন্যরা আশাহত হলেও তারা কেউই নির্বাচন থেকে পিছপা হচ্ছেন না। সকলেই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মেয়র পদে নির্বাচন করবেন বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে রাতেই মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে বর্তমান মেয়র মো. ছালেক মিয়া জানান, আমি ঢাকা থেকে শায়েস্তাগঞ্জ আসার পর আমার কর্মী সমর্থকদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবো।
মনোনয়ন প্রত্যাশী স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আতাউর রহমান মাসুক বলেন, দলীয় সভানেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যাকে ভালো মনে করেছেন তাকে মনোনয়ন দিয়েছেন। আমি উনার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই। আমি সব সময় চেষ্টা করেছি দলের ভালোর জন্য। দল আমাকে মূল্যায়ন করেনি তাতে আমার কোনো দুঃখ নেই। জনগণ যদি আমাকে মূল্যায়ন করে তাতেই আমি খুশি। আর যেহেতু আমি দীর্ঘদিন ধরে নির্বাচন করার জন্য প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছি তাই আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেবো। আমার বিশ্বাস জনগণ আমাকে মূল্যায়ন করবেন।
শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ফজল উদ্দিন তালুকদার বলেন, আমি নির্বাচন করার মানসে দীর্ঘ ৮ মাস ধরে এলাকায় কাজ করে যাচ্ছি। আমাকে আমার কর্মী-সমর্থকরা সব সময় নির্বাচন করতে উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা দিয়ে যাচ্ছেন। দল যাকে ভালো মনে করেছে তাকে মনোনয়ন দিয়েছে। আমি দলীয় সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই। তবে আমি মেয়র পদে স্বতন্ত্র নির্বাচন করবো। আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কাশেম শিবলু বলেন, আমি নির্বাচনে অংশ নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি অনেক আগেই। দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় আমার কর্মী সমর্থকদের নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। কর্মী-সমর্থক ও এলাকাবাসীর দাবি আমি যেনো নির্বাচনে অংশ নেই। তাদের দাবির প্রেক্ষিতে আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি দলীয় মনোনয়ন না পেলেও নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশ নেবো।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
২৯ নভেম্বর ২০২০, রবিবার, ৭:৩৭

কোন স্থানীয় নির্বাচনে একবারের বেশী কাউকে মনোনয়ন দেওয়া উচিত নয়। নেতা কর্মীর সবাইকে সুযোগ দিতে এই রীতি চালু করা উচিত প্রতিটি দলের। এতে নির্বাচিত ব্যক্তির মাঝে মেয়াদ শেষে জনগণের কাছে জবাবদিহির ভয়ে দুর্নীতি করবে কম।

অন্যান্য খবর