× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার

সিলেটে দল থেকে বহিষ্কার আবদাল

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে
৩ ডিসেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার

দল থেকে বহিষ্কার হলেন সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও ওসমানীনগর উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সদস্য আবদাল মিয়া। এর আগে তিনি বিগত উপজেলা নির্বাচনের সময় দল থেকে বহিষ্কার হয়েছিলেন। বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটি এবার তাকে বহিষ্কার করলো। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ২৬শে নভেম্বর কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদকের চলতি দায়িত্বে থাকা  সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স স্বাক্ষরিত এক পত্রে আবদাল মিয়াকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেট জেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীদার জানিয়েছেন, আবদাল মিয়াকে দল থেকে বহিষ্কারের বিষয়ে কেন্দ্রের প্রেরিত একটি পত্র আমাদের কাছেও এসেছে। বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবদাল মিয়ার বিরুদ্ধে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে অবস্থান নিয়ে বিএনপির দলীয় নিয়ম-শৃঙ্খলা ভঙ্গের কাজে লিপ্ত থাকার পাশাপাশি আওয়ামী লীগসহ স্থানীয় একাধিক জনপ্রতিনিধির সঙ্গে আঁতাত করে দলীয় লোকজনকে হয়রানিসহ দলের সাংগঠনিক কার্যক্রমের পরিপন্থি গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগে লিপ্ত থাকার পরও কেন আব্দাল মিয়ার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না। তার যথাযথ সুস্পষ্ট কারণ উল্লেখ করে ৭ দিনের মধ্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় মহাসচিব বরাবরে লিখিত জবাব প্রেরণের জন্য গত ৩১শে অক্টোবর নির্দেশ প্রদান করেন কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদকের চলতি দায়িত্বে থাকা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স। পরবর্তীতে সন্তোষজনক জবাব না পাওয়ায় বিএনপির কেন্দ্র থেকে আবদাল মিয়াকে বহিষ্কার করা হয়।
এর আগে ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ায় তৎকালীন আবদাল মিয়াকে বহিষ্কার করে কেন্দ্রীয় বিএনপি। কৌশলে দৌড়ঝাঁপ চালিয়ে নানা পন্থা অবলম্বনের মাধ্যমে দীর্ঘ দেড় বছর পর গত সেপ্টেম্বরের শেষে দিকে সেই বহিষ্কার আদেশ প্রত্যাহার করা হয়। এক মাসের মাথায় আবারো দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে তাকে শোকজ করা হলে শোকজের জবাব না পেয়ে আবারো দল থেকে আবদাল মিয়াকে বহিষ্কার করা হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর