× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২২ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার
আলাপন

৮ মাসে জীবনই বদলে গেছে -মিলা

বিনোদন

ফয়সাল রাব্বিকীন
৩ ডিসেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার

করোনাভাইরাস অনেক বড় প্রভাব ফেলেছে আমাদের জীবনে। বিশেষ করে মানসিকভাবে। কত মানুষকে আমরা হারিয়েছি এই সময়ে। আবার কত মানুষ এই ভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ করে জয়ী হয়েছে। যারা আক্রান্ত হননি তারাও একটি ভয়ের মধ্যে সময় পার করছেন। সত্যি বলতে এই ৮ মাসে জীবনই বদলে গেছে। লাইফস্টাইল বদলে গেছে। আমি তো প্রথম কয়েক মাস বন্দি ছিলাম ঘরে।
এখনও তেমন বের হচ্ছি না। পরিবার, আমার বেড়াল ও গান নিয়ে চলে যাচ্ছে আমার সময়। এমনভাবেই কথাগুলো বলছিলেন জনপ্রিয় পপ তারকা মিলা ইসলাম। জীবনকে অন্যভাবে দেখছেন এখন তিনি। মিলা বলেন, আমি কেন, ছোট-বড় পরিবর্তন সবার মধ্যেই এসেছে। আমরা করোনার প্রথম কয়েকমাস নিজেদের নিয়ে ভাবার সুযোগ পেয়েছি অনেক। ব্যস্ত জীবনে হঠাৎ বিরতি টানার ফলে প্রিয়জনদের সঙ্গে বেশি সময় অতিবাহিত করতে পেরেছি। জীবনের আসল অর্থ কি তা বোঝার যথেষ্ট সময় পেয়েছি। এর মাধ্যমে নতুন শুরুর সুযোগ হয়েছে। আর গানের কি অবস্থা? মিলা বলেন, গানের মাঝেই আছি। এই কয়েকমাস যখনই সময় সুযোগ মিলেছে গান তৈরির চেষ্টা করেছি। নিজের স্টুডিওতে গান নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করেছি। কারণ এমন লম্বা বিরতিতো আগে পাইনি। এই বিরতিতে বেশ কিছু গান করেছি। সময় সুযোগ বুঝে সেগুলো প্রকাশ করবো। এই সময়ে আর কি কি করেছেন? মিলা বলেন, আমি এই সময়ে চেষ্টা করেছি মানুষের পাশে দাড়াতে। মানুষকে আরো বেশি করে জানতে, বুঝতে। আমার সামর্থ্য অনুযায়ি এই করোনায় অনেকের পাশে দাড়ানোর চেষ্টা করেছি। প্রতিবেশীদের নিজ হাতে রান্না করে খাইয়েছি। এখনও আমার এই সহযোগীতার ধারা অব্যহত আছে। আমি যতদিন বাঁচবো চেষ্টা করে যাবো অসহায় মানুষের পাশে দাড়াতে। এতে যে কি শান্তি বলে বোঝানো যাবে না। স্টেজ শোয়ের অবস্থাতো খারাপ। শো তো বন্ধ রয়েছে? মিলা বলেন, হ্যা। অনেক শিল্পী-মিউজিশিয়ান এই করোনায় খারাপ অবস্থার মধ্যে পড়েছেন। এটা খুবই দুঃখজনক। অনেকেই ঢাকাও ছেড়েছেন। এই মহামারী না যাওয়া পর্যন্ত আসলে স্টেজ পুরোপুরি শুরু হওয়ার সম্ভাবনা কম। তাই দোয়া করি যেন দ্রুতই এ অবস্থার অবসান হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর