× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২০ জানুয়ারি ২০২১, বুধবার

জিমি লাইয়ের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ গঠন

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) ডিসেম্বর ৩, ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৪:০০ পূর্বাহ্ন

হংকংয়ের শক্তিশালী মিড়িয়া ব্যক্তিত্ব ও গণতন্ত্রপন্থি সমর্থক জিমি লাইয়ের (৭৩) বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। এ অভিযোগের পরবর্তী শুনানি হবে আগামী বছরের এপ্রিলে। সে পর্যন্ত তাকে জেলে আটকে রাখার আদেশ দিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার তার জামিন চাওয়া হলে তা নামঞ্জুর করে আদালত। জিমি লাই তার প্রতিষ্ঠানকে অবৈধ কাজে ব্যবহার করছিলেন বলে অভিযোগ আনা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।
গণতন্ত্রপন্থি তিন নেতাকে গ্রেফতারের একদিন পরেই জিমির জামিন নাকচ করল আদালত। এ বছর হংকং ইস্যুতে বহুল বিতর্কিত একটি নিরাপত্তা আইন পাস করে চীন।  এই আইন পাস হওয়ার পরই হংকং শহরের নেতাকর্মী ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্বদের গ্রেফতার হওয়ার বিষয়টি নতুন করে আশঙ্কার সৃষ্টি করেছে। চীন বলছে, এই অঞ্চলে এক বছর ধরে চলা অস্থিরতার পর এই আইনের মাধ্যমে স্থিতিশীলতা ফিরে আসবে।
তবে সমালোচকরা বলছেন, এই আইন মত প্রকাশে বাধা সৃষ্টি করছে। বিশেষত, হংকংয়ে অধিকতর স্বায়ত্তশাসন ও অধিকারের দাবিতে যে গণবিক্ষোভ হয়েছে প্রায় বছরজুড়ে, সেই আন্দোলনকে থামিয়ে দিতে এই আইন করা হয়েছে। এর ফলে গ্রেপ্তার এড়াতে হংকংয়ের অনেক নাগরিক বিদেশে স্বেচ্ছা নির্বাসনে চলে গেছেন। এরপর সম্প্রতি সেখানকার লেজিসলেটিভ কাউন্সিল থেকে বরখাস্ত করা হয় বিরোধী দলীয় চারজন আইনপ্রণেতাকে। এর প্রতিবাদে বিরোধী দলীয় অন্য আইনপ্রণেতারা পদত্যাগ করেন।
জিমি লাই হলেন হংকংয়ে নেক্সট ডিজিটাল-এর প্রতিষ্ঠাতা। তার প্রতিষ্ঠান থেকে প্রকাশিত হয় অ্যাপল ডেইলি ট্যাবলয়েড পত্রিকা। বুধবার রাতে মিডিয়া সংস্থা নেক্সট ডিজিটালের আরো দুইজন সিনিয়র নির্বাহীসহ লাইকে গ্রেফতার করা হয়। অ্যাপল ডেইলি মূলত হংকংয়ে চীনা নেতৃত্বকে প্রায় সমালোচনা করে লেখা প্রকাশ করে। জিমি লাই তার কোম্পানির অফিস লিজ বা ইজারা অনুমোদন ছাড়াই ব্যবহার করছেন এমন অভিযোগে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়নি। গ্রেপ্তার করা তিনজনকেই বুধবার আদালতে হাজির করা হয়। অ্যাপল ডেইলির রিপোর্টে বলা হয়েছে, এই মামলার বিচারক আসনে যিনি বসেছিলেন, তার হাত-পা বাঁধা হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি লামের কাছে। যদিও দু’জনকে জামিন দেয়া হয়েছে, তবে জিমি লাই জামিন পাননি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর