× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, মঙ্গলবার

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য করবোই, কারো বাধা দেয়ার এখতিয়ার নেই, মাহবুব-উল আলম হানিফ

বাংলারজমিন

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
৪ ডিসেম্বর ২০২০, শুক্রবার

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ কীভাবে চলবেÑ সেটা ১৯৭১ সালে ফয়সালা হয়ে গেছে। সে অনুযায়ী দেশ চলবে, কারো কিছু বলার নেই। রাষ্ট্র আছে, সরকার আছে, ধমের্র দোহাই দিয়ে এ সমস্ত অপব্যাখ্যা দিয়ে যারা সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে, তাদের কঠোরভাবে দমন করা হবে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের একটি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় এসব কথা বলেন তিনি। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নূর উদ্দিন চৌধুরী নয়নের সঞ্চালনায় মাহবুব-উল হানিফ আরো বলেন, ভাস্কর্য করবো, করবোই। এখনো কারো বলার বা বাধা দেয়ার কোনো এখতিয়ার নেই।  ষড়যন্ত্র এখনও চলছে। থেমে নেই। যে কোনো ইস্যুতে আবারো দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চাই বিএনপি ও মৌলবাদী একটি গোষ্ঠী।
একেক সময় একেক ইস্যু তৈরি করে তারা। এখন ভাস্কর্য ইস্যু। স্বাধীন দেশে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য হবেই। কোনো অপশক্তি নেই এটা প্রতিহত করার। যারা ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে কথা বলবেন তাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। জনগণ প্রতিহত করবে।
হানিফ আরো বলেন, ভাস্কর্য নিয়ে কিছু আলেম-ওলামা-মাশায়েখ উগ্র কথা বলছেন। তারা নাকি ইসলামের ধারক-বাহক। ইসলামে জঙ্গিবাদ, মৌলবাদের স্থান নেই। ইসলাম শান্তির ধর্ম। অথচ তারা শান্তির ভাষায় কথা বলছে না। তাদের যে উগ্রতা সেটা ইসলামের কথা হতে পারে না। শান্তির ধর্মের কথা হতে পারে না। ওলামা-মাশায়েখদের কাছে প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, আপনারা কোন ইসলামের কথা বলছেন? আপনাদের এই ভাষা জনগণ বরদাশ্ত করবে না। এরাই এক সময় রাজাকার ছিল অথবা রাজাকারের পরিবারের সন্তান ছিল। আজ তারা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে।
ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরব, ইরান, জর্দান এমনকি পাকিস্তানসহ পৃথিবীর বিভিন্ন মুসলিম দেশগুলোতে ভাস্কর্য রয়েছে দাবি করে হানিফ বলেন, ওইসব দেশে ভাস্কর্য নিয়ে তো কেউ কথা বলে না। এর আগে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ভার্চ্যুয়াল সভায় যোগ দিয়ে বক্তব্য রাখেন।
এ সময় আরো বক্তব্যে রাখেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুর নাহার লাইলী, কেন্দ্রীয় নেতা সাবেক এমপি হারুনুর রশিদ, লক্ষ্মীপুর-সদর ৩ আসনের এমপি একেএম শাহজাহান কামাল, লক্ষ্মীপুর-১ আসনের এমপি ড. আনোয়ার হোসেন খান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহাজান, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মেয়র আবু তাহের, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা ইঞ্জিনিয়ার খোকন পাল, জেলা যুবলীগের সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম সালাহউদ্দিন টিপুসহ কেন্দ্রীয় ও জেলা ও উপজেলা নেতারা বক্তব্য রাখেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর