× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার

মধু দা’র ভাস্কর্যের কান ভাঙলো কারা?

শেষের পাতা

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার
৪ ডিসেম্বর ২০২০, শুক্রবার

ভাস্কর্য নির্মাণ নিয়ে আলেম-ওলামা ও প্রগতিশীলদের কথার লড়াই ও আন্দোলন-পাল্টা আন্দোলন চলছে বেশ কিছুদিন ধরে। এরই মধ্যে কে বা কারা ভেঙে দিয়েছে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ মধুসূদন দে’র স্মৃতি রক্ষার্থে নির্মিত ভাস্কর্যের একটি কান। বুধবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনের সামনে অবস্থিত মধু দা’র ভাস্কর্যের একটি কান ভেঙে দেয় দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে রাতেই কানটি পুনঃস্থাপন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিমের সদস্যরা। তবে গতকাল পর্যন্ত এ ঘটনা কে বা কারা ঘটিয়েছে তা জানা যায়নি।  এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী বলেন, বুধবার রাতে মধু দা’র ভাস্কর্যের একটা কান বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে থাকার খবর পাই। সঙ্গে সঙ্গে আমাদের প্রক্টরিয়াল টিম এটিকে মেরামত করে দিয়েছে মর্মে আমাদের কাছে জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, ভাস্কর্যের আঘাতটি খেয়ালের বশে হয়েছে, নাকি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে, তা এখনো জানা যায়নি। কারা, কী উদ্দেশে কাজটি করেছে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সেটা খুঁজে বের করতে বলা হয়েছে।
মধুর ক্যান্টিনের এক কর্মচারী বলেন, হঠাৎ ভাস্কর্যটির একটি কান নিচে পড়ে থাকতে দেখা যায়। এরপর প্রক্টরিয়াল টিম সেটি পুনঃস্থাপন করে। উল্লেখ্য, মধুসূদন দে ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে পাকবাহিনীর হাতে শহীদ হন। তার নামেই মধুর ক্যান্টিনের নামকরণ করা হয়। বর্তমানে ক্যান্টিনটি তার এক পুত্র পরিচালনা করছেন। মধুর ক্যান্টিনকে কেন্দ্র করেই দেশে ছাত্র রাজনীতি পরিচালিত হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর