× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার

কুলাউড়ায় কে হচ্ছেন নৌকার কাণ্ডারি

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, মৌলভীবাজার থেকে
৬ ডিসেম্বর ২০২০, রবিবার

ঐতিহ্যবাহী কুলাউড়া পৌরসভার নির্বাচনে নৌকার কাণ্ডারি কে হচ্ছেন এ নিয়ে চলছে নানা গুঞ্জন ও চুলচেরা বিশ্লেষণ। তবে বিএনপি ও অন্যান্য দলের প্রার্থীরা এখনো সরব না হওয়ায় ভোটার ও ভোটের মাঠ অনেকটাই আমেজহীন। তবে বিএনপি দু’-একদিনের মধ্যেই তাদের প্রার্থী নির্ধারণ করতে পারে বলে জানিয়েছেন জেলা ও উপজেলা বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ। জানা গেছে, ২য় দফায় অনুষ্ঠিতব্য পৌর নির্বাচনে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া পৌরসভায় নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী ৩ জন। এই ৩ প্রার্থী চূড়ান্ত মনোনয়ন পেতে অবস্থান করছেন কেন্দ্রে। চলাচ্ছেন জোর লবিং। কেন্দ্রেই নির্ধারিত হবে নৌকার কাণ্ডারি। এদিকে আওয়ামী লীগ তাদের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকা চূড়ান্ত করলেও বিএনপি’র কোনো তৎপরতা লক্ষ্য করা যায়নি।
দেশে ২য় দফায় পৌর নির্বাচনে তফসিল ঘোষণার পর ৩রা ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার রাতে পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এক বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। বর্ধিত সভায় মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নেছার আহমদ এমপি, সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিসবাউর রহমান, কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি রফিকুল ইসলাম রেনু, সাধারণ সম্পাদক আসম কামরুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি খোরশেদ উল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক গৌরা দে প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। বর্ধিত সভায় পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নাম আহ্বান করা হয়। এ সময় দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে যারা লিখিত আবেদন করেন তারা হলেন- উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক ও আওয়ামী লীগ নেতা বিশিষ্ট ক্রীড়া সংগঠক অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ, যুবলীগের সাবেক সেক্রেটারি শফিউল আলম শফি এবং বিগত পৌর নির্বাচনে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থী ও বর্তমান পৌরসভার মেয়র শফিউল আলম ইউনুছ।  কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্ত অনুয়ায়ী কোনো বিদ্রোহী প্রার্থী দলীয় মনোনয়নের জন্য বিবেচিত হবে না বলে আগেই জানিয়ে দেয়া হয়। ফলে বর্তমান মেয়র শফিউল আলম ইউনুছের ভাগ্যে দলীয় মনোয়ন না জোটার সম্ভাবনা বেশি। অপর ২ প্রার্থীর মধ্যে স্থানীয়ভাবে শক্তিশালী অবস্থান রয়েছে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক ও আওয়ামী লীগ নেতা অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদের। ইতিমধ্যে তিনি পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে একাধিকবার মানুষের দ্বারে দ্বারে গেছেন। ভোটের মাঠে তার একটা শক্ত অবস্থান রয়েছে। অপর প্রার্থী যুবলীগের সাবেক সেক্রেটারি শফিউল আলম শফি নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর হঠাৎ করে নিজেকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা  দেন। মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিসবাউর রহমান জানান, ৩ জনের নামের তালিকা কেন্দ্রে প্রেরণ করেছি। তবে এরমধ্যে বর্তমান পৌরসভার মেয়র শফিউল আলম ইউনুছ দলের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে বিগত পৌরসভা নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন বলে তার নামের পাশে মন্তব্য কলামে বিদ্রোহী প্রার্থী উল্লেখ করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর