× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার

শ্রীমঙ্গলে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে সাংবাদিক গ্রেপ্তার

বাংলারজমিন

শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি
৬ ডিসেম্বর ২০২০, রবিবার

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে নিজের স্ত্রীকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগে অনুজ কান্তি দাশ (৪০) নামে এক সংবাদকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
তিনি শ্রীমঙ্গল শহরের পূর্বাশা আবাসিক এলাকার নরেশ চন্দ্র দাশের ছেলে। গ্রেপ্তারকৃত অনুজ কান্তি দাশ দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।
শ্রীমঙ্গল থানা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৮শে নভেম্বর অনুজ কান্তি দাশের স্ত্রী অনিতা রাণী দাশকে অসুস্থ অবস্থায় সিলেটের রাগিব-রাবেয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থার অবনতি হলে সেখানে ঐদিন আইসিউতে রাখা হলে পরদিন ২৯শে নভেম্বর সে মারা যায়। এ ঘটনায় গত ৪ঠা ডিসেম্বর অনিতা রাণীর পরিবার থেকে তাকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ করা হয়।
নিহতের বাবা দিলীপ দাশ (৬৫) বাদী হয়ে অনুজ কান্দি দাশকে প্রধান আসামি করে শ্রীমঙ্গল থানায় হত্যার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন।
মামলায় অনুজের মা পূরবী রাণী দাশ (৬৫) ও বাবা নরেশ চন্দ্র দাশ (৭০) কে আসামি করা হয়। এ মামলার জের ধরে পুলিশ শনিবার দুপুরে নিজ বাসা থেকে অনুজ কান্তি দাশকে গ্রেপ্তার করে।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২০১৭ সালের মে মাসে হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার পুকড়া গ্রামের বাসিন্দা অনিতা রাণী দাশের সঙ্গে অনুজ কান্তি দাশের পারিবারিকভাবে বিবাহ হয়। অনিতার পরিবার শুরু থেকে মেয়ের জামাই অনুজ কান্তি দাশের বিরুদ্ধে মদ্যপান করে প্রায় প্রতিদিন অনিতাকে শারীরিক ও মানসিক ভাবে নির্যাতন করতো বলে অভিযোগ করেন।
এনিয়ে স্থানীয়ভাবে এলাকায় বিচার সালিশ এবং অনিতাকে পিত্রালয়ে আটক করে রাখার ঘটনা ঘটে।
অনিতার বাবা মামলায় অভিযোগ করেন, গত ২৮ নভেম্বর তার মেয়েকে নির্যাতন করে প্রথমে শহরের একটি ক্লিনিকে এবং পরে সিলেটের রাগিব রাবেয়া হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরদিন অনিতা আইসিউতে থাকাবস্থায় মারা যায়।
এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি মো.আব্দুছ ছালেক বলেন, নিহত অনিতা রানীর পিতার অভিযোগ ও প্রাথমিক স্বাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে মামলার প্রধান আসামী অনুজ কান্তিকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তি আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর