× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, রবিবার

সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে দুই মামলা কাল আদেশ

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার
১২ জানুয়ারি ২০২১, মঙ্গলবার

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ডিএসসিসি মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসকে নিয়ে ‘মানহানিকর বক্তব্য’ দেয়ার অভিযোগে সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেছেন দুই আইনজীবী। গতকাল বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী কাজী আনিসুর রহমান এবং এডভোকেট মো. সারওয়ার আলম নামের এক ব্যক্তি ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে মামলা দুটি করেন। মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরী দুই আবেদনকারীর জবানবন্দি শুনেন। এরপর এ বিষয়ে আগামী মঙ্গলবার আদেশের জন্য দিন ধার্য করেন।
এদিকে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) বর্তমান মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসের মানসম্মানের ‘বাজারমূল্য’ জানতে চেয়ে গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠিয়েছেন ডিএসসিসি’র সাবেক মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনের জনসংযোগ কর্মকর্তা হাবিবুল ইসলাম। বিবৃতিতে সাবেক মেয়র ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেন, তাপসের মানসম্মানের বাজারমূল্য কত? মামলার পূর্ণাঙ্গ বিবরণী পাওয়ার পর সেটা আমি জানতে পারবো। এ মামলার আইনি মোকাবিলার পাশাপাশি রাজপথে দেনা-পাওনার হিসাব হবে, ইনশাআল্লাহ।


বাদী এডভোকেট মো. সারোয়ার আলম মামলার অভিযোগে উল্লেখ করেন, আসামি সাঈদ খোকন গত শনিবার জাতীয় ঈদগাহ গেটের সামনে ফুলবাড়িয়া মার্কেটের উচ্ছেদ হওয়া ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন কর্মসূচিতে বলেন, তাপস ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই দুর্নীতির বিরুদ্ধে গলাবাজি করে চলেছেন। আমি তাকে বলবো রাঘবোয়ালের মুখে চুনোপুঁটির গল্প মানায় না।
কেননা দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়তে হলে সর্বপ্রথম তার নিজেকে দুর্নীতিমুক্ত করতে হবে। তারপর চুনোপুঁটিদের দিকে দৃষ্টি দিতে হবে। অথচ তিনি উল্টো কাজ করছেন। তিনি বলেন, দায়িত্ব গ্রহণের পর তাপস ডিএসসিসি’র শত শত কোটি টাকা তার নিজ মালিকানাধীন মধুমতি ব্যাংকে স্থানান্তর করেছেন। অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়, গত রোববার আসামি সাঈদ খোকনের এই বক্তব্য নিয়ে বাংলাদেশের জাতীয় পত্রিকা এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়া ও সামাজিক মাধ্যমে বিভিন্ন শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এতে ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের বিরুদ্ধে মানহানিকর বক্তব্য প্রকাশ করে আসামি সাঈদ খোকন দ-বিধি আইনের ৫০০ ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন। এ ব্যাপারে আইনজীবী সারোয়ার আলম সাংবাদিকদের বলেন, ঢাকার দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস সম্পর্কে মানহানিকর বক্তব্য দিয়েছেন, যা গণমাধ্যমে প্রচারিত হয়েছে। যে কারণে তিনি সংক্ষুব্ধ হয়ে সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন। আদালত তার জবানবন্দি রেকর্ড করেছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
১৭ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ২:১৫

Said khukon was more or less untrustworthy so did not got nomination. Party's internal report was not in favor of him. Shop owners complain confirm those reports were true. Still he is aggressive against Taposh. This is not political culture.

অন্যান্য খবর