× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৪ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার

জোড়া জীবন পেয়ে লাবুশেনের শতক

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৬ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার

২০১৯ সালের নভেম্বরে ব্রিসবেনের গ্যাবায় পাকিস্তানের বিপক্ষে পেয়েছিলেন প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির স্বাদ। দক্ষিণ আফ্রিকায় জন্ম নেয়া এই ব্যাটসম্যানের বেড়ে ওঠা অস্ট্রেলিয়ার উত্তরের রাজ্য কুইন্সল্যান্ডে। হাতের তালুর মতোই গ্যাবার উইকেট চেনা  লাবুশেনের। এই মাঠে খেলা তিন টেস্টেই ছড়ি ঘোরালেন প্রতিপক্ষের বোলারদের ওপর। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলেছিলেন ৮১ রানের ইনিংস। একই বছরের নভেম্বরে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৮৫ রানের পর গতকাল ভারতের বিপক্ষে খেললেন ১০৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। ২৬ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যানের পঞ্চম টেস্ট সেঞ্চুরিতে রয়েছে ভাগ্যের ছোঁয়া। ৩৭ রানে অজিঙ্কা রাহানে ও ৪৮ রানে লাবুশেনের ক্যাচ ছেড়েছেন চেতেশ্বর পূজারা।
গ্যাবায় চার সেঞ্চুরি মালিক ডেভিড ওয়ার্নার প্রথম ওভারের শেষ বলে ফেরার পর মাঠে নামেন লাবুশেন।
শুরুতে নড়বড়ে থাকলেও সময়ের সঙ্গে খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসেন। সঙ্গে ছিল ভাগ্যের ছোঁয়া। স্টিভেন স্মিথের (৩৬ রান) সঙ্গে তৃতীয় উইকেটে ৭০ রান এবং ম্যাথু ওয়েডের (৪৫ রান) সঙ্গে চতুর্থ উইকেটে গড়েন ১১৩ রানের জুটি। অভিষিক্ত পেসার নটরাজনের প্রথম শিকারে পরিণত হওয়ার আগে খেলেন ২০৪ বলে ১০৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। লাবুশেনের ব্যাটে গড়ে দেয়া অজিদের প্রথম ইনিংসের ভিত আরো শক্ত করেন ক্যামেরন গ্রিন (২৮*) ও অধিনায়ক টিম পেইন (৩৮*)। ষষ্ঠ উইকেটে দু’জনের অবিচ্ছিন্ন ৬১ রানের জুটিতে প্রথম দিনে এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া। ৫ উইকেটে ২৭৪ রান নিয়ে শনিবার দ্বিতীয় দিন শুরু করবে স্বাগতিকরা।
ভারতের অনভিজ্ঞ বোলিং লাইন আপের মোট টেস্ট অভিজ্ঞতা ৪ ম্যাচের। অভিষেক হয়েছে স্পিনার ওয়াশিংটন সুন্দর ও নটরাজনের। দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নামা পেসার নবদিপ সাইনি কুঁচকিতে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন। তার আগে করেছেন ৭.৫ ওভার। অনভিজ্ঞ বোলিং লাইন আপই কাঁপিয়ে দিয়েছে স্বাগতিক ব্যাটসম্যানদের। লাবুশেনের জোড়া ক্যাচ মিস না হলে সিরিজ নির্ধারণী শেষ টেস্টের প্রথম দিনটা হতে পারত ভারতের। নটরাজনের শিকার ২ উইকেট। একটি করে উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ সিরাজ, ওয়াশিংটন সুন্দর ও শার্দুল ঠাকুর।

সেই নটরাজনই গড়লেন ইতিহাস
আইপিএল-এ দারুণ পারফরমেন্স করে প্রথমবার ডাক পান জাতীয় দলের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দু’টিতে হেরে হোয়াইটওয়াশের শঙ্কায় ছিল ভারত। শেষ ওয়ানডেতে অভিষেক নটরাজনের। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রথম উইকেটের স্বাদ পান লাবুশেনকে ফিরিয়ে। অভিষেক ওয়ানডেতে ৭০ রানে নেন ২ উইকেট। ১৩ রানে ম্যাচ জেতে ভারত। টি-টোয়েন্টি সিরিজে করেন দুর্দান্ত পারফরমেন্স। ভারতের ২-১ ব্যবধানে জেতা সিরিজে ৬ উইকেট নিয়ে ছিলেন সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি। টেস্ট স্কোয়াডে না থাকলেও নেট বোলার হিসেবে দলের সঙ্গে নটরাজনকে রেখে দেয় ভারত। চার ম্যাচের লম্বা টেস্ট সিরিজের কথা মাথায় রেখেইে এই সিদ্ধান্ত ভারতীয় দলের। প্রথম টেস্ট থেকেই একের পর এক চোটে ছিটকে যেতে থাকেন মোহাম্মদ শামি, উমেশ যাদবরা। তৃতীয় টেস্টে চোট পেয়ে ছিটকে যান জসপ্রিত বুমরাহও। কপাল খুলে যায় নটরাজনের। ব্রিসবেনে টেস্ট ক্যাপ মাথায় তোলার সঙ্গে রেকর্ডবুকে নাম লেখান ২৯ বছর বয়সী এই পেসার। ভারতের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে একই সিরিজে তিন ফরম্যাটে অভিষেকের রেকর্ড গড়েন তিনি। স্বপ্নময় অস্ট্রেলিয়া সফরের জন্য নটরাজনকে বড় ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে। আরব আমিরাতে হওয়া ত্রয়োদশ আইপিএলের শেষ দিকে প্রথম সন্তানের বাবা হন তিনি। ভারতীয় দল দেশে ফিরবে জানুয়ারির তৃতীয় সপ্তাহে। প্রায় আড়াই মাস পর প্রথমবার দেখতে পাবেন মেয়ের মুখ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর