× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১ মার্চ ২০২১, সোমবার

মোংলায় বিএনপির মেয়রসহ ১২ কাউন্সিলর প্রার্থীর ভোট বর্জন

বাংলারজমিন

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি
১৬ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার

মোংলা পোর্ট পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মো. জুলফিকার আলী সহ মোট ১২ জন কাউন্সিলর প্রার্থী ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। এদের মধ্যে ৯ জন কাউন্সিলর প্রার্থী ও ৪ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী রয়েছেন।  ভোট কেন্দ্র দখল, এজেন্টদের মারধর করে বের করে দেওয়া, ভোটারদের ভোট দিতে না দেওয়া, বুথের মধ্যে অন্যদের উপস্থিতিতে ভোট দিতে বাধ্য করাসহ বিভিন্ন অভিযোগে এই ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন তারা। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিএনপির মেয়র প্রার্থী জুলফিকার আলীর মাদরাসা রোডস্থ নিজ বাসভবনের নির্বাচনী অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ ভোট বর্জনের ঘোষণা দেয় তারা।
বর্জন করা কাউন্সিলররা হলেন-১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী হাবিব ফকির, মাইনুল ইসলাম, ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ইমান হোসেন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী সুমন মল্লিক, ইউনুস আলী,  ৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী এমরান হোসেন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী অ্যাডভোকেট মো. হোসেন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. আলাউদ্দীন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. খোরশেদ আলম,  ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী এম এ কাদের, সংরক্ষিত ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিলর প্রার্থী কমলা বেগম, ৪, ৫ ও ৬ নম্বর  ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী লিলি বেগম, ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আয়শা বেগম।
সংবাদ সম্মেলনে কাউন্সিলরা বলেন, শুধু মেয়র প্রার্থীর ভোটার সমর্থক নয়, কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থক ও ভোটারদেরও কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। আমাদের সমর্থকদেরও মারধর করেছে আওয়ামী সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী ও দলীয় নেতাকর্মীরা।
এবিষয়ে মোংলা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, নির্বাচন বর্জনের বিষয়টি আমরা এখনও জানিনা। তবে যেসব স্থানে ঝামেলার কথা জেনেছি সেসব জায়গায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সহায়তায় সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনা হয়েছে।।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Md. Harun al-Rashid
১৬ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার, ২:১৪

শিরনাম একই-বর্ননা স্হানভেদে ভিন্ন। এক ফর্মায় এক যুগ-মানে যুগোত্তীর্ন ব্যবস্হা।

অন্যান্য খবর