× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৭ মার্চ ২০২১, রবিবার

সংগঠনে বিচার না পেয়ে থানায় অভিযোগ ছাত্রলীগ নেত্রীর

এক্সক্লুসিভ

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার
১৬ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার

সংগঠনের শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে বিচার না পেয়ে এবার পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফাল্গুনী দাস তন্বী। গতকাল তিনি শাহবাগ থানায় এ অভিযোগ করেন। গত ২১শে ডিসেম্বর রাতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনজীর হোসেন নিশি, শামসুন্নাহার হল শাখার সাধারণ সম্পাদক জিয়াসমিন শান্তাসহ কয়েকজন ছাত্রলীগকর্মী তাকে মারধর করে। মারধরের পর তিনি বেশ কিছুদিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। ঘটনার পর কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে বিচার চেয়ে অভিযোগ দেন তন্বী। কিন্তু প্রায় একমাস হতে চললেও ঘটনার বিচার করেনি কেন্দ্রীয় নেতারা। তাই এবার থানার দ্বারস্থ হলেন তিনি। মারধরের অভিযুক্ত ও ভুক্তভোগী সবাই কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের অনুসারী।
শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরিফুর রহমান সরদার অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন। থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রইচ উদ্দীনকে অভিযোগ তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তদন্তে প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেলে এটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তন্বীর লিখিত অভিযোগে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বেনজীর হোসেন নিশি, শামসুন্নাহার হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াসমিন শান্তা, ছাত্রলীগ নেতা শাহজালাল, এনামুল এবং তানসেনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরিফুর রহমান সরদার বলেন, ফাল্গুনী দাস তন্বী একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগের সত্যতা যাচাই করার জন্য আমরা একজন এসআইকে দায়িত্ব দিয়েছি। প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেলে অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হবে।
আর অভিযোগ দায়েরকারী ছাত্রলীগ নেত্রী ফাল্গুনী দাস তন্বী বলেন, আমি সাংগঠনিকভাবে অভিযোগ করে কোনো বিচার পাইনি। বাধ্য হয়ে আইনের দ্বারস্থ হয়েছি। এখন আমি স্ট্রংলি ফাইট করবো।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর