× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৭ মার্চ ২০২১, রবিবার

শুরুর আগেই বড় ধাক্কা অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৭ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার

তিন সপ্তাহ পিছিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন মাঠে গড়ানোর কথা আগামী ৯ই ফেব্রুয়ারি। গত ১০০ বছরের মধ্যে প্রথমবার পিছিয়ে গেছে বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্লামের আসরটি। তবে পরিবর্তিত সূচী অনুযায়ী ১০৯তম আসরটি মাঠে গড়ানো নিয়েও তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। ‘জৈব সুরক্ষা’ বলয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন আয়োজনের তোড়জোড় চলছে। চার্টাড বিমানে করে খেলোয়াড়, কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্টদের অস্ট্রেলিয়ায় আনার প্রক্রিয়া চলছে। এরই মধ্যে জানা গেল, খেলোয়াড় ও অন্যান্য স্টাফদের বহনকারী বিমানের তিনজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। তবে আক্রান্ত বিমানযাত্রীদের কেউই খেলোয়াড় নন। বিমানে আসা ৪৭ জন খেলোয়াড়কে এখন থাকতে হবে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে।

একটি বিমান ২৪ জনকে নিয়ে এসেছিল লস অ্যাঞ্জেলস থেকে।
সেই বিমানের একজন কর্মী আক্রান্ত হয়েছেন। সঙ্গে কোনও একজন খেলোয়াড়ের দলের সদস্য। পরে আবুধাবি থেকে আসা অন্য একটি বিমানের আর একজনের রিপোর্ট পজেটিভ আসে। দ্বিতীয় বিমানে ২৩ জন যাত্রী ছিলেন। লস অ্যাঞ্জেলস থেকে আসা বিমানে ছিলেন ইউএস ওপেনের পুরুষ এককের ২০১৪ আসরের রানার্সআপ কেই নিশিকোরি ও দুবারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেন চ্যাম্পিয়ন ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কা। ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকাকালীন এই ৪৭ খেলোয়াড় থাকবেন হোটেলবন্দী। অনুশীলনের জন্য কোর্টে নামার কোন সুযোগ নেই তাদের। খেলোয়াড়, কর্মকর্তা, কর্মচারী মিলিয়ে ১,২০০ জনকে গ্র্যান্ড স্ল্যামে থাকার অনুমতি দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার সরকার। মোট ১৫টি বিমানে তাদের মেলবোর্নে পৌঁছনোর কথা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর