× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, রবিবার
কাউন্সিলর তরিকুল হত্যা

বিক্ষোভে উত্তাল সিরাজগঞ্জ

বাংলারজমিন

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
১৮ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার

সিরাজগঞ্জে ভোটে বিজয়ী কাউন্সিলর হত্যার প্রতিবাদে গতকাল সকাল থেকে উত্তপ্ত পরিবেশ বিরাজ করছে। কাউন্সিলর তরিকুল ইসলামকে ছুরিকাঘাতে হত্যার ঘটনায় কোনো মামলা না হলেও পুলিশের তদন্ত শুরু হয়েছে। তবে কাউকে আটক করা হয়নি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও নিহতের পরিবারকে সঠিক তদন্তের মাধ্যমে বিচার নিশ্চিতের আশ্বাস দিয়েছেন পুলিশের ঊর্ধ্বতনরা। গত শনিবার রাত ৮টার দিকে শহীদগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন। পরবর্তীতে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, শহীদগঞ্জ কেন্দ্রে ভোট গণনা শেষে ফলাফল ঘোষণা আটকে রেখেছিল নিহত তরিকুল ইসলামের প্রতিদ্বন্দ্বী কাউন্সিলর শাহাদাত হোসেন বুদ্দিন। তার বাড়ি শহীদগঞ্জ এলাকায়।
ফলাফল ঘোষণা করতে প্রিজাইডিং অফিসারকে কয়েক দফা বলার পর রাত ৮টার দিকে ওই কেন্দ্রে তরিকুল ইসলামকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। ফলাফল নিয়ে শহীদগঞ্জ প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে বের হওয়ার পরই তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়। তরিকুল ইসলামের পরিবার ও সমর্থকদের দাবি, তাকে ছুরি মেরে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ শাহাদাত হোসেন বুদ্দিনের লোকজন। নিহত তরিকুল ইসলামের ছোট ভাই সোহাগ ইসলাম বলেন, শহীদগঞ্জ কেন্দ্রে রেজাল্ট হচ্ছিল না। আমার ভাই রেজাল্ট আনতে সেখানে যায়। আমার ভাইকে ভেতরে ঢুকতে বাধা দেয়া হয়। আমার ভাইয়ের অবস্থানের কারণে প্রিজাইডিং অফিসার রেজাল্ট দিতে বাধ্য হন। তাকে এর আগে রেজাল্ট প্রকাশ করতে দিচ্ছিল না বুদ্দিনের লোকজন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর