× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৪ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার

বরিশালে জহির উদ্দিন স্বপনের বাসভবনে হামলা, আহত ১৫

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল থেকে
১৮ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার

নিজ জন্মভূমি গৌরনদীতে যেতে পারছেন না গৌরনদী-আগৈলঝাড়া আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপি নেতা জহির উদ্দিন স্বপন। তাই বরিশাল মহানগরীতে তার অপর বাড়িতে বসে কর্মিসভা করছিলেন। সেখানেও ব্যাপক হামলা ভাঙচুর করা হয়েছে। গতকাল নগরীর ভাটিখানা প্রথম গলিতে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় জহির উদ্দিন স্বপনের বাসভবনে হামলা চালিয়ে ভাঙচুরসহ কর্মীদের মারধর করা  হয়েছে। কাউনিয়া থানা পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিলেও হামলাকারীদের কাউকে আটক করতে পারেনি। হামলায় বিএনপি’র অন্তত ১৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। হামলার ঘটনায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাকর্মীদের জড়িত থাকার অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতারা।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকালে গৌরনদী আসন্ন পৌর মেয়র নির্বাচন উপলক্ষে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হান্নান শরীফসহ এলাকার  নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে বরিশাল নগরীর ভাটিখানা রোডস্থ শরিকল ভবনে সভা করছিলেন সাবেক এমপি জহির উদ্দিন স্বপন।
দুপুর আনুমানিক ২টার দিকে অন্তত অর্ধশত লোক একত্রিত হয়ে বাসভবনে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ভাঙচুর শুরু করে। এ সময় তাদের প্রতিরোধ করতে উদ্যোগী হলে গৌরনদী ছাত্রদল নেতা হাফিজুর রহমান, রাসেল খন্দকার, রুকুনুজ্জামান ও রাজিব খানসহ প্রায় ১৫ জনকে পিটিয়ে আহত করে। সাবেক সংসদ সদস্য বিএনপি নেতা জহির উদ্দিন স্বপন জানান, তিনি দীর্ঘদিন আওয়ামী লীগের অত্যাচারে নিজ গ্রামের মায়ের কবরে পর্যন্ত যেতে পারছেন না। এলাকায় গিয়ে একাধিকবার রাজনৈতিক হামলার শিকার হওয়ার কারণে আজ বরিশালের নিজ বাসায় বসেও নির্বাচন পরিচালনা কমিটি ও দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কথা বলছিলেন। এ সময় আকস্মিক আওয়ামী লীগের লোকজন হামলা চালিয়েছে। তবে এই হামলায় কে বা কারা জড়িত তা স্পষ্ট করেননি বিএনপি নেতা। গৌরনদী গৌরসভার বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী হান্নান শরীফ অভিযোগ করেন, হামলাকারীরা বাসার বেশকিছু আসবাবপত্র ভাঙচুর করেছে। এবং এই হামলায় তাদের অন্তত ১৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। তার অভিযোগ, হামলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এলেও কাউকে আটক করেনি। পরবর্তীতে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। তবে কাউনিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি/তদন্ত) সগির আহম্মেদ দাবি করেছেন, খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় অভিযোগ দিলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এদিকে, অতর্কিত হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে দাবি রেখেছেন বরিশাল উত্তর জেলা বিএনপি সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর