× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার

প্রায় ৬০ ভাগ মার্কিনি মনে করেন ট্রাম্প বর্ণবাদী

দেশ বিদেশ

মানবজমিন ডেস্ক
১৯ জানুয়ারি ২০২১, মঙ্গলবার

নতুন এক জরিপে দেখা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে বর্ণবাদী হিসেবে অভিহিত করেন প্রায় অর্ধেক মার্কিন ভোটার। তাদের পরিমাণ শতকরা ৫৭ ভাগ। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে বিভক্তি আরো গভীর করেছেন তিনি- এ কথা মনে করেন দুই-তৃতীয়াংশ মার্কিনি। ট্রাম্পকে যারা ভোট দিয়েছেন, তাদের শতকরা ১২ ভাগ তাকে বর্ণবাদী হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে ট্রাম্পই প্রথম প্রেসিডেন্ট, যার বিরুদ্ধে দ্বিতীয়বার অভিশংসন প্রক্রিয়া চলমান। এরই মধ্যে তাকে কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদ বা নিম্নকক্ষে অভিশংসিত করা হয়েছে। এখন এই প্রস্তাব উচ্চকক্ষ সিনেটে পাঠানো হবে। সেখানে তা ধারাবাহিকভাবে চলতে থাকবে।
বৃটেন থেকে প্রকাশিত অনলাইন ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে এই কথা বলা হয়েছে। এতে আরো বলা হয়েছে, সর্বশেষ এই জরিপটি করেছেন কনজারভেটিভ পার্টির সাবেক ডেপুটি চেয়ারম্যান মাইকেল অ্যাসক্রফট। তিনি এই জরিপ পরিচালনা করেছেন ২০ হাজার মানুষের উপরে। তাতে দেখা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের শতকরা ৫৭ ভাগ মানুষই মনে করেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প একজন বর্ণবাদী। তবে এর বিরোধিতা করেন শতকরা মাত্র ৩৭ ভাগ ভোটার। ১৯৯২ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশের পর প্রথম দফা শেষে প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচনে প্রথমবারের মতো পরাজিত হয়েছেন ট্রাম্প।
মার্কিন ভোটাররা বিশ্বাস করেন এবারের নির্বাচনে জো বাইডেন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন এ কারণে যে, তার একমাত্র লক্ষ্য ছিল প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে পরাজিত করে হোয়াইট হাউসের চাবি নিশ্চিত করা। এ নির্বাচনকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে একটি গণভোট হিসেবে মনে করেন অ্যাশক্রফট। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সর্বোচ্চ বেশি বয়সে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন জো বাইডেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর