× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৮ মার্চ ২০২১, সোমবার

যে কারণে ৩-এ সাকিব নয় শান্ত

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
১৯ জানুয়ারি ২০২১, মঙ্গলবার

ক্যারিয়ারে ২৩ ওয়ানডেতে তিনে ব্যাটিং করে ২টি সেঞ্চুরি ও ১১ ফিফটিতে ১ হাজার ১৭৭ রান করেছেন সাকিব আল হাসান। সেখানে গড় ৫৮.৮৫ ও স্ট্রাইকরেট ৮৮.৭৬ দুটিই বলছে এই পজিশনে ব্যাট হাতে কতটা সফল তিনি! একই পজিশনে সর্বশেষ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ৮ ইনিংসে ৮৬.৫৭  গড়ে ২ সেঞ্চুরি ও ৫ ফিফটিতে সাকিবের সংগ্রহ ছিল ৬০৬ রান। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সাকিব এই পজিশনে খেলতে পারবেন না। এমনটাই জানিয়েছেন টাইগারদের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। গতকাল ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ দলে প্রোটিয়া কোচ জানিয়েছেন, নাম্বার থ্রি-তে নাজমুল হোসেন শান্তকে খেলানো হবে। তিনি বলেন, ‘শান্ত দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছে। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে সাকিবের ফেরাটাও দারুণ। বিশ্বকাপে সে তিন নম্বরে অবিশ্বাস্য ছিল।
এই মুহূর্তে বলতে পারি, অভিজ্ঞ ক্রিকেটার হিসেবে চার, পাঁচ ও ছয়ে সাকিব, মুশফিক ও রিয়াদ খেলবে। এটা মিডল অর্ডারকে পরিণত ও অভিজ্ঞতা দেবে। উপমহাদেশে খেলতে গেলে আমরা জানি মিডল অর্ডার খুব গুরুত্বপূর্ণ।’
এক বছর নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আবারো মাঠে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান। তবে এখনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা হয়নি বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারের। সবশেষ তিনি ওয়ানডে খেলেছেন ২০১৯ এর বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে সাকিব ফিরলেও ব্যাট হাতে ছিলেন নিষ্প্রভ। ডমিঙ্গো বলেন, ‘এই মুহূর্তে শান্ত খুব ভালো ছন্দে আছে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সবশেষ সিরিজে সে খেলেছে। কয়েকজন তরুণ ব্যাটসম্যানের উন্নতির ব্যাপারটা আমাদের নিশ্চিত করতে হবে। উপমহাদেশে টপ অর্ডার হলো তরুণ ব্যাটসম্যানের উন্নতির সেরা জায়গা।’  পরিসংখ্যানও বলছে কোচের সিদ্ধান্ত ভুল নয়।  কারণ, প্রেসিডেন্টস কাপে ব্যর্থ শান্ত ভালো করেন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টিতে। ৮ ম্যাচে এক সেঞ্চুরি ও দুই ফিফটিতে করেন ৩০১ রান। নিজেদের মধ্যে ভাগ হয়ে খেলা দুই প্রস্তুতি ম্যাচেও রান পেয়েছেন শান্ত। প্রথম ম্যাচে ৩৫ বলে করেন ২৭, পরেরটিতে ৫১ বলে ৬১।
কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেন, ‘অনেক দিন ধরে সাকিব আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে। চার নম্বরে খেললে সে কিছুটা স্বস্তির জায়গা পাবে। আমরা জানি, সে বিশ্বমানের খেলোয়াড়। এই ব্যাটিং লাইন আপ ভবিষ্যতের কোনো সুর বেঁধে দেবে না। বিশ্বকাপের জন্য এখনও অনেক পথ বাকি। ব্যাটিং লাইন আপ ঠিক করার আগে আমাদের অনেক বিকল্প নিয়ে কাজ করে দেখতে হবে।’  ওপেনিংয়ে অধিনায়ক তামিম ইকবালের ওপরই আস্থা। তিনি বলেন, ‘তামিম ও লিটন ওপেনিংয়ে এই মুহূর্তে বেশ থিতু। আমরা সম্ভবত সৌম্যকে মিডল অর্ডারে ভাবতে পারি। ইনিংসের শেষ দিকে ঝড় তুলতে পারবে এমন কাউকে খুঁজছি আমরা। আমি জানি, সৌম্য সব সময় ইনিংসের শুরুতে ব্যাট করেছে। শেষের দিকে মানানসই এমন কাউকে খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা আমাদের চালিয়ে যেতে হবে।’
২০২৩ বিশ্বকাপে চোখ রেখে কোচ বলেন, ‘বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে সবাই বিভিন্ন ভূমিকায় খেলবে। এরপরই আমরা ব্যাটিং লাইন আপ চূড়ান্ত করবো। এই মুহূর্তে আমরা রিয়াদের সঙ্গে ইনিংস শেষ করার জন্য সৌম্যর দিকে তাকিয়ে আছি। এটা কঠিন একটি পরিস্থিতি। এই ভূমিকায় তাকে নিয়ে সবার ধৈর্য ধরতে হবে।’ মূলত বিশ্বকাপ ভাবনা এই সিরিজ থেকেই যে শুরু হচ্ছে তা প্রাথমিক দল ঘোষণার পর থেকেই স্পষ্ট। দেশের সাবেক সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকেও রাখা হয়নি। শুধু তাই নয় দলের স্পিন নির্ভরতাও কমাতে চান কোচ। যে কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পেসারদের  বেশি খেলানোর ভাবনা তার। কারণ, মার্চেই বাংলাদেশ দল যাবে নিউজিল্যান্ড সফরে। সেখানে যে স্পিনারদের খুব একটা প্রয়োজন হবে না তা কোচ রাসেলের ভালো করেই জানা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর